জনরোষ চাপা দিতে পাইকারি গ্রেপ্তার: খালেদা জিয়া

নিউজ ডেস্ক: বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছেন, গুম, খুন, অপহরণ, বিচার বহির্ভূত হত্যাকান্ড ও চাল-ডাল-তেল-পেঁয়াজ-লবণসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির পাশাপাশি দফায় দফায় গ্যাস-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধিতে সৃষ্ঠ জনরোষকে চাপা দেয়ার জন্য দেশব্যাপী বিএনপি ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের পাইকারি হারে গ্রেপ্তার করে নির্যাতন করা হচ্ছে।

জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান মিন্টুকে গ্রেফতার করে কারান্তরীণ এবং বারবার পুলিশী রিমান্ডের নামে হয়রানি ও নির্যাতনের ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে গতকাল রবিবার এক বিবৃতিতে বেগম জিয়া একথা বলেন। গত ১৭ নভেম্বর রাজধানীর পুরানা পল্টন এলাকা থেকে ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদককে আটক করে পুলিশ। পরে মতিঝিল থানায় দায়ের করা একাধিক নাশকতার মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

খালেদা জিয়া বলেন, বর্তমান নিপীড়ক সরকার পরিকল্পিতভাবে দেশের তরুণ সমাজকে ধ্বংস করার জন্য নানামুখী নীলনকশা প্রণয়ণ করে চলেছে। সরকার তাদের দুঃশাসনের প্রতিপক্ষ মনে করে দেশের আদর্শবাদী তরুণ সমাজকে।

’তারেক রহমানের নেয়ার কিছু নেই’

গত পরশু রাতে বেগম খালেদা জিয়া বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে নিয়ে লেখা তিনটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন। এ উপলক্ষে ওই রাতে তার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, তারেক রহমানের নেয়ার কিছু নেই। তারেক রহমান সম্পর্কে আপনারা যতটুকু জানেন এবং বোঝেন, দেখবেন সে বিদেশে চিকিত্সাধীন হয়েও দেশ থেকে কেউ গেলে দেশের অবস্থা জানতে চান। কারণ তার নেয়ার মতো কিছু নেই।