অতিথি পাখির কলকাকলিতে মুখরিত রাউজানের নির্ঝন পুকুর

রাউজান প্রতিনিধি: গ্রামীণ জনপদে শীত আস্তে আস্তে ঝেঁকে বসতে শুরু করেছে। এদেশের শীতল আবহাওয়ার টানে বিভিন্ন দেশ থেকে উঁড়ে আসতে শুরু করেছে ঝাঁকে ঝাঁকে পাখি।

অন্যান্য বছরের মত এবারও হাজার হাজার মাইল অতিক্রম করে বিভিন্ন প্রজাতির অতিথি পাখির ঝাঁক উঁড়ে এসে আশ্রয় নিয়েছে রাউজানের বড় বড় পুকুর দিঘিতে। দলবদ্ধ পাখি এখন ঠাঁই নিয়েছে এখানকার জনকোলাহলমুক্ত পরিবেশে নির্ঝন এলাকার পুকুর দিঘিতে।

ভিনদেশী এসব পাখির ঝাঁক দেখা যায়, নোয়াপাড়া ইউনিয়নের কর্তার দিঘি, কদলপুর ইউনিয়নের লষ্কর উজির দিঘিসহ উপজেলার বিভিন্নস্থানের বড় বড় জলাশয়ে। ভিন দেশির পাখির ঝাঁক যেই এলাকায় নেমেছে, সেই এলাকাটি এখন কলকাকলিতে ভরে উঠেছে।

কিচিমিচি শব্দ শুনে অনেকেই উঁকি মেরে দেখছে পাখির মুক্তবিচরণ। কৌতুহলী অনেকেই কাছ থেকে দেখতে গেলেই ঝাঁক বেঁধে উড়াল দিচ্ছে আকাশের পানে। আতংকিত পাখির দল কিছুক্ষণের জন্য আকাশে উঁড়ে তীক্ষ্ম দৃষ্টি রাখে নিচের দিকে। যখনই তারা নিরাপদ মনে করছে তখনই এসে পড়ছে আশ্রয় নেয়া সেই পুকুর দিঘিতে। পাখি নিয়ে কাজ করেন এমন বিশেষজ্ঞদের মতে বাংলাদেশের শীতের আবহওয়ার পরশ পেতে বহু দেশ থেকে ছুটে আসে পাখি দল।

এসব পাখির মধ্যে দেখা যায়, শামুক ভাঙ্গা, লালশির, পাতারি হাঁস, কালো হাঁস, বালি হাঁস, মাঝলা বক, সরালী, ছোট সরালী, রাজ হাঁস, কানি বক, ধূসর বক, গো বক, সাদা বক, জলের কাদাখোঁচা পাখি, লেঞ্জা, কুন্তি হাঁসসহ বিভিন্ন প্রজাতির পাখি।

সূত্র মতে পৃথিবীতে প্রায় ৫ লাখ প্রজাতির পাখি রয়েছে। এসব পাখির একটি অংশ বছরের একটি নিদিষ্ট সময়ে দেশে দেশে ছুটে বেড়ায়। মৌসুমী ভ্রমনে বের হওয়া এসব পাখির একটি সংখ্যা আমাদের দেশে আসে শীতের মৌসুমে। ওরা আশ্রয় নেয় গ্রামীণ বিভিন্ন খাল, বিল, পুকুর, দিঘির মত বড় বড় জলাশয়ে।

প্রিন্স, ঢাকা