ভাষানচরে পুনর্বাসন করা হবে এক লাখ রোহিঙ্গাকে

নিউজ ডেস্ক: ভাসানচরে এক লাখ রোহিঙ্গা পুনর্বাসনের জন্য ২ হাজার ৩১২ কোটি ১৫ লাখ টাকা ব্যয়ে একটি প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। সম্পূর্ণ সরকারি অর্থায়নে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আওতায় বাংলাদেশ নৌবাহিনী চলতি বছর শুরু করে ২০১৯ সালের নভেম্বরের মধ্যে এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে। সভায় জানানো হয়েছে, বিপন্ন রোহিঙ্গাদের বিশাল স্রোত দেশের নিরাপত্তা, পরিবেশ দুটোর জন্যই হুমকি হিসেবে দেখা দিয়েছে। বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত অসহায় মিয়ানমারের নাগরিকদের কক্সবাজারের বিভিন্ন স্থানে বসবাসের স্থান সংকুলান করা দুরূহ হয়ে পড়ছে। প্রতিনিয়ত পাহাড়ি জমি ও বনাঞ্চল নষ্ট হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে গতকাল শেরেবাংলা নগরস্থ এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ১০ হাজার ৯৯ কোটি ১৬ লাখ টাকা ব্যয়ে ১৪টি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে দুটি সংশোধিত। সভা শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল সাংবাদিকদের প্রকল্পের বিভিন্ন দিক অবহিত করেন।

তিনি জানান, রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাতে ইতোমধ্যে মিয়ানমারের সঙ্গে একটি সমঝোতা চুক্তি হয়েছে। কিন্তু এত রোহিঙ্গাকে ফিরিয়ে নেয়ার জন্য সময় দরকার। বর্তমানে অনেক রোহিঙ্গা খোলা আকাশের নিচে অমানবিক পরিবেশে বসবাস করছে। তা ছাড়া বিপুলসংখ্যক মানুষের চাপে কক্সবাজারের স্থানীয় মানুষ ও পরিবেশও বিপর্যয়ের সম্মুখীন হচ্ছে। তাদের জন্য ব্যবস্থা নিচ্ছি। বিশ্বাস করি আমরা নিজেদের টাকায় কাজ শুরু করলেও বিদেশিরা সহযোগিতা নিয়ে এগিয়ে আসবে।

অনুমোদিত অন্যান্য প্রকল্প হলো- ময়মনসিংহ জোনের বিদ্যুত্ বিতরণ ব্যবস্থা উন্নয়ন প্রকল্প, মাদারীপুর, শরীয়তপুর ও রাজবাড়ী জেলা গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প, বরিশাল, ঝালকাঠি ও পিরোজপুর জেলার গুরুত্বপূর্ণ পল্লী অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প, সিরাজগঞ্জ জেলার গুরুত্বপূর্ণ গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প।

সভায় বরিশাল বিভাগের বরগুনা জেলার বেতাগী, বামনা ও পাথরঘাটা, পটুয়াখালী জেলার দুমকী, দশমিনা ও গলাচিপা, চট্টগ্রাম বিভাগের বি-বাড়িয়া জেলার সদর উপজেলা এবং খুলনা বিভাগের নড়াইল সদর উপজেলা ও বাগেরহাট জেলার মোংলা উপজেলায় বাস্তবায়নের জন্য ৩৫৩ কোটি ৫২ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘গুরুত্বপূর্ণ গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প’ (২য় পর্যায়) নামে অপর একটি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

সভায় একনেকের অবগতির জন্য অপর ৫টি প্রকল্পের সংক্ষিপ্ত বিবরণী উপস্থাপন করা হয়।