রোহিঙ্গাদের দ্রুত ফিরিয়ে নিতে হবে: তুরস্কের উপপ্রধানমন্ত্রী

সিনিয়র রিপোর্টার: দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী (মায়া), বীরবিক্রম ২১ নভেম্বর রোহিঙ্গা বিষয় নিয়ে তুরস্কের উপপ্রধানমন্ত্রী রিসেপ আকদাদের সাথে উপপ্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মতবিনিময় করেন। মতবিনিময়কালে তারা মায়ানমার থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন।

পরবর্তী এক সংবাদ সম্মেলনে তুরস্কের উপপ্রধানমন্ত্রী রিসেপ আকদাদ বলেন, মায়ানমার জুলুম করে আরাকানের রোহিঙ্গা নাগরিকদের বাংলাদেশে বিতাড়িত করেছে। এ বিতাড়নকে তিনি বর্বরতা ও নৃশংসতা বলে উল্লেখ করেন।

মুসলমান বলেই তাদেরকে বিতাড়ন করা হয়েছে বলে তিনি মন্তব্য করেন। রোহিঙ্গাদের সার্বিক সহযোগিতা ও নিজ দেশে ফিরিয়ে নিতে সকল মুসলিম দেশকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান উপপ্রধানমন্ত্রী।

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মায়ানমারের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ আরো কার্যকরভাবে বৃদ্ধির জন্য বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি তিনি আহ‌্বান জানান। ১০ লাখ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশে আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ বিশ্বে এক নজিরবিহীন মানবিকতা দেখিয়েছে বলে উপপ্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশকে আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানান।

এসময় মায়া চৌধুরী বলেন, নিতান্ত মানবিক কারণে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে আশ্রয় দিয়েছে। রোহিঙ্গা এখন বাংলাদেশে এক নিদারুন আর্থিক, সামাজিক ও শৃঙ্খলাগত সমস্যার সৃষ্টি করেছে।

এদের বাসস্থান, খাদ্য, চিকিৎসা, স্যানিটেশন, পানীয়জল ও জ্বালানির জন্য আন্তর্জাতিক সহযোগিতা প্রয়োজন। রোহিঙ্গা সমস্যার শান্তিপূর্ণ সমাধানের জন্য আন্তর্জাতিক হস্তক্ষেপ কামনা করেন মায়া চৌধুরী। রোহিঙ্গা সমস্যার শুরু থেকে বাংলাদেশকে সমর্থন ও সহযোগিতা দেয়ায় মায়া চৌধুরী তুরস্কের সরকার ও জনগণকে ধন্যবাদ জানান।