বারী সিদ্দিকীর শারীরিক অবস্থার অবনতি

নিউজ ডেস্ক: জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী বারী সিদ্দিকীর শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হয়েছে।

শুক্রবার রাতে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তির পর নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে।

শিল্পীর সর্বশেষ অবস্থার কথা জানিয়েছেন তার ছেলে সাব্বির সিদ্দিকী। তিনি বলেন, তার বাবার অবস্থার আরও অবনতি হয়েছে। বাবার জন্য পরিবারের পক্ষ থেকে দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন তিনি।

হাসপতাালের তথ্য অনুসন্ধান বিভাগের কর্মকর্তা মুকিত হাসান জানান, দুটি কিডনি অকার্যকর অবস্থায় বহুমূত্র রোগেও ভুগছেন বারী সিদ্দিকী। শুক্রবার রাতে হাসাপাতালে ভর্তির পর থেকে তাকে লাইফ সাপোর্ট দিয়ে রাখা হয়।

বারী সিদ্দিকী ১৯৫৪ সালের ১৫ নভেম্বর নেত্রকোনা জেলায় এক সঙ্গীতজ্ঞ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৯৫ সালে প্রখ্যাত সাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের ‘রঙের বাড়ই’ নামের একটা ম্যাগাজিন অনুষ্ঠানে জনসমক্ষে প্রথম সঙ্গীত পরিবেশন করেন তিনি।

এরপর ১৯৯৯ খ্রিস্টাব্দে হুমায়ূন আহমেদের রচনা ও পরিচালনায় নির্মিত শ্রাবণ মেঘের দিন চলচ্চিত্রে ৭টি গানে কণ্ঠ দেন বারী সিদ্দিকী। এর মধ্যে ‘শুয়া চান পাখি’ গানটির জন্য তিনি অতিদ্রুত ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করেন। ‘পুবালি বাতাসে’, ‘আমার গায়ে যত দুঃখ সয়’, ‘ওলো ভাবিজান নাউ বাওয়া’, ‘মানুষ ধরো মানুষ ভজো’ গানও তুমুল জনপ্রিয় হয়েছে।

১৯৯৯ সালে জেনেভায় অনুষ্ঠিত বিশ্ব বাঁশি সম্মেলনে ভারতীয় উপমহাদেশ থেকে একমাত্র প্রতিনিধি হিসেবে তিনি অংশগ্রহণ করেন। ২০১৩ সালে সিদ্দিকী ফেরারী অমিতের রচনা ও পরিচালনায় পাগলা ঘোড়া নাটকে প্রথমবারের মত অভিনয় করেন।