প্রাপক মিয়ানমারের সেনাবাহিনী

 সাকিব জামাল

মিয়ানমারের সেনাবাহিনী, তোমাদের বিবৃতিতে বিশ্ব অবাক, হতাশ !
মানবতাকে ভ্রুকুটি মারা, বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখানোর- তোমাদের এ এক জঘণ্য প্রয়াস !

তোমরা দাবী করেছো :
কোনো ‘নিরীহ গ্রামবাসীর ওপর চালাওনি গুলি’
গুলিতে ঝাঝরা হয়ে যাওয়া মানবদেহ দেখেছি,
অথচ তোমাদের এ কেমন ভ্রান্ত দাবী – মিথ্যে বুলি ?

তোমরা দাবী করেছো :
নারীদের ওপর করোনি ‘যৌন অত্যাচার বা ধর্ষণ’
অথচ, আমরা দেখেছি নারীদের, তরুনীদের হৃদয় বিদারক ক্রন্দন ।
কেন তবে এই মিথ্যে প্রতিবেদন ?

তোমরা দাবী করেছো :
গ্রামের সাধারণ ‘বাসিন্দাদের গ্রেপ্তার, মারধর বা হত্যা করোনি’
অথচ আমরা দেখেছি মানুষ মেরেছো পশুর মতন- দয়া করোনি !
এখন কেন বলছো এমন অসত্য কাহিনী ?

তোমরা দাবী করেছো :
সাধারণ মানুষের বাড়ি থেকে স্বর্ণ বা রূপাসহ কোনো মূল্যবান সামগ্রী বা গবাদিপশু করোনি লুটপাট !
অথচ আমরা দেখেছি এসবেরই মহা উৎসব, লুটেরাদেরই চোটপাট ।
এখন তোমাদের এমন দাবী শতভাগ ভিত্তিহীন, বানোয়াট ।

তোমরা দাবী করেছো :
মসজিদে ধরিয়ে দাওনি আগুন
অথচ আমরা দেখেছি- এড়ায়নি এ নিরাপদ স্থানটুকুন !
তোমাদের এমন দাবী প্রকাশ করে তোমাদেরই বিবেকহীন পরিচয়টুকুন ।

তোমরা দাবী করেছো :
দাওনি পুড়িয়ে সাধারণ মানুষের বাড়ি !
অথচ আমরা দেখেছি- আগুনের লেলিহান শিখা, শুনেছি নাফ নদীর পাড়ে বুকফাটা আহাজারি ।
এখন তোমাদের এমন দাবী দেখে বুঝিনা – তোমরা কিসের মানুষ ? নাকি মুখোশধারী !

শোনো, রোহিঙ্গাদের উপর তোমাদের নির্যাতন, গণহত্যা দেখেছে বিশ্ব – কিভাবে করবে অস্বীকার ?
সাধু সাজার চেষ্টা পুণ:অপরাধ, বরং চাতুরী রেখে- ফিরিয়ে নাও, দাও তাদের যথাযথ নাগরিক অধিকার ।