ভূতের মুখে রামরাম: কাদের

নিউজ ডেস্ক: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, ‘আমাদের দেশে তারাই নীতিকথা বলে যারা বেশি দুর্নীতিবাজ। এই দেশে যারা নষ্ট রাজনীতি সূচনা করেছে, যারা সাম্প্রদায়িকতা করার চেষ্টা করেছে, যারা জঙ্গিবাদে মদদ দিয়েছে তারা বলে রাজনীতির গুণগত মান পরিবর্তনের কথা। এটা ভূতের মুখে রামরাম তাই নয় কি?’ গতকাল সোমবার বিকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। একাত্তরের ৭ই মার্চে দেয়া বঙ্গবন্ধুর ভাষণ আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পাওয়া উপলক্ষে এই আলোচনা সভার আয়োজন করে সাংবাদিকদের শীর্ষ দুই সংগঠন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিকদ ইউনিয়ন (ডিইউজে)।

২০১৪ সালের কথা মনে করিয়ে দিয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘যারা আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়েছে, যারা বাসে আগুন দিয়ে পুড়িয়েছে তারা বলেন রাজনীতিতে গুণগত পরিবর্তনের কথা।’ তিনি বলেন, আগামী ১৮ নভেম্বর আওয়ামী লীগ রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে নাগরিক সমাবেশ করবে। এই সমাবেশকে বিএনপির সঙ্গে পাল্টাপাল্টি হিসেবে না দেখতে সাংবাদিকদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আপনারা বিএনপির সমাবেশের সাথে এটাকে পাল্টাপাল্টি সমাবেশ বানাবেন না। প্লিজ আমি আপনাদের কাছে মাফ চাচ্ছি। আমরা কোনো পাল্টাপাল্টি সমাবেশ করতে চাচ্ছি না। আমাদের সমাবেশ নিয়ে রাজনীতি করতে চাচ্ছি না।’

রবিবার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করে বিএনপি। কর্মদিবসের এই সমাবেশে নগরবাসীর দুর্ভোগ হয়েছে জানিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, জনদুর্ভোগ যাতে না হয় সেজন্য আমরা শনিবার সমাবেশ দিয়েছি। এক শ্রেণির সাংবাদিকের সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কিছু সাংবাদিক আছে মফস্বলে তারা শুধু কার্ড গলায় ঝুলিয়ে, প্যাড নিয়ে চাঁদাবাজি করে। তারা থানার ওসি, ভূমি অফিস, টিএনও অফিসে বসে থাকে। অথচ তারা একলাইন শুদ্ধভাবে লিখতে জানে না। গ্রামের মানুষ সাংবাদিক নাম শুনলেই বলে উঠে সাংঘাতিক।’