শ্রীমঙ্গলে অবাধে কাটা হচ্ছে শতবর্ষী বটবৃক্ষ

নিউজ ডেস্ক: শ্রীমঙ্গলে ঝুঁকিপূর্ণ দেখিয়ে একের পর এক কেটে ফেলা হচ্ছে শতবর্ষী বটবৃক্ষগুলো। ইতোমধ্যে শহরের কালীঘাট রোডের একটি বটগাছ কেটে ফেলা হয়েছে।

সমপ্রতি ভানুগাছ রোডের রেল গেইট সংলগ্ন আরেকটি বটগাছ কাটার প্রায় শেষ প্রান্তে এসে অল্পের জন্য রক্ষা পেয়ে গেলো এটি। এদিকে শহরের কালের সাক্ষী হিসেবে ইতিহাস ও ঐতিহ্যের স্মৃতিবিজড়িত শতবর্ষী বিশালাকৃতির এই বটবৃক্ষগুলো কেটে ফেলার এমন উদ্যোগে গোটা শহর জুড়ে তোলপাড় চলছে।

জানা যায়, রাস্তার পাশে অবস্থিত ঝুঁকিপূর্ণ গাছগুলোকে চিহ্নিত করে এর তালিকা অনুযায়ী সংশ্লি­ষ্ট বিভাগের অনুমোদনের পর সেগুলো কাটার প্রক্রিয়া শুরু করে সড়ক ও জনপথ বিভাগ। এর মধ্যে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত এবং শ্রীমঙ্গলের ঐতিহ্যের নিদর্শন স্টেশন রোডের বিশালাকৃতির শিশির গাছসহ আরো অনেকগুলো শতবর্ষী গাছ রয়েছে। গাছগুলো কাটার জন্য নাসির নামের জনৈক ঠিকাদারকে টেন্ডার দেওয়া হয় বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মিন্টু রঞ্জন দেবনাথ বলেন, গাছগুলো প্রকৃতপক্ষেই ঝুঁকিপূর্ণ কি-না, বা এখানকার ইতিহাস-ঐতিহ্যের সাক্ষ্য বহন করে কি-না তা তিনি জানেন না। তবে গাছগুলো যদি ঐতিহ্যবাহী হয়, তাহলে এগুলোকে কাটার জন্য চিহ্নিত না করাই উচিত ছিল বলে তিনি মনে করেন।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মোবাশশেরুল ইসলাম বলেন, রাস্তার পাশে শতবর্ষী বৃক্ষ কাটার ব্যাপারে প্রশাসনিকভাবে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে রেল গেইট সংলগ্ন বট গাছটিকে কেটে ফেলার হাত থেকে রক্ষা করা হয়েছে।