কুমিল্লায় ২ বেসরকারী হাসপাতাল বন্ধের নির্দেশ

কুমিল্লা প্রতিনিধি: বিনা লাইসেন্সে কার্যক্রম পরিচালনার অভিযোগে কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার বলদাখাল এলাকায় অবস্থিত এ্যাপোলো প্লাস হাসপাতাল ও চান্দিনা উপজেলার চান্দিনা মেডিনোভা হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধের নির্দেশনা দিয়েছেন কুমিল্লার সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ মজিবুর রহমান।

মঙ্গলবার (৭ নভেম্বর) বিকেল ৪টার দিকে তিনি আকস্মিক অভিযান চালিয়ে বেসরকারী হাসপাতাল দু’টির বিরুদ্ধে এ ব্যবস্থা গ্রহণ করেন। কুমিল্লার সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ মজিবুর রহমান জানান, বিনা লাইসেন্স বিহীন কোন হাসপাতাল ডায়াগনস্টিক সেন্টার চালাতে দেয়া হবে না। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। পর্যায়ক্রমে দাউদকান্দির গৌরীপুরসহ সকল স্থানে এ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এদিকে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে সকল শ্রেণীর মানুষ।

উল্লেখ্য, গত ১৮ সেপ্টেম্বর জেলার হোমনা উপজেলার দৌলতপুর গ্রামের আউয়াল হোসেনের স্ত্রী খাদিজা আক্তারকে (২২) দাউদকান্দির গৌরীপুর লাইফ হসপিটাল অ্যান্ড ডিজিটাল ডায়াগনোস্টিক সেন্টারে সিজারিয়ান অপারেশন করা হয়। অপারেশনে অংশ নেন দাউদকান্দির বিটেশ্বর ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ কেন্দ্রে প্রেষণে থাকা মালিগাঁও ২০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালের সহকারী সার্জন ডা. হোসনে আরা। সিজারিয়ান অপারেশন করে জমজ সন্তানের একটি সন্তান গর্ভে রেখেই সেলাই করে দেয়া হয়েছিল।

এরপর এ ঘটনায় হাইকোর্টেল বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ স্বপ্রণোদিত হয়ে আলোচিত সেই সিভিল সার্জন ডা. মুজিবুর রাহমান, ডা. হোসনে আরা বেগম এবং জেলার দাউদকান্দির গৌরীপুর লাইফ হসপিটাল অ্যান্ড ডিজিটাল ডায়াগনোস্টিক সেন্টারের মালিক ও স্থানীয় ব্যবসায়ী মজিবুর রহমানকে হাইকোর্টে তলব করে।