নির্বাচনে হেরে গিয়ে বিদ্যালয়ে তালা-ভাঙচুর

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : লক্ষ্মীপুর পরিচালনা কমিটির নির্বাচনে পরাজিত হয়ে বিদ্যালয়ে ভাঙচুর ও তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে এক প্রার্থী। সোমবার (৬ নভেম্বর) সকালে সদর উপজেলার পরশগঞ্জ মনছুর আলম উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটায় পরাজিত প্রার্থী সাহাব উদ্দিন ও তার লোকজন। এসময় বিদ্যালয়ের বিভিন্ন আসবাবপত্র, একটি টিউবওয়েল ভাঙচুর করে ও আগুন লাগিয়ে দেয় তারা। এরআগে প্রধান শিক্ষক মাইন উদ্দিনকে হুমকি দিয়ে ভয়-ভীতি প্রদর্শন করার অভিযোগ করা হয়।

বিদ্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে দেয়ায় শ্রেণিকক্ষে প্রবেশ ও পাঠদান করতে না পারায় ঘটনার সাথে জড়িতদের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করে শিক্ষার্থীরা। খবর পেয়ে কুশাখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে তালা ভেঙ্গে পাঠদানের কার্যক্রম চালু করা হয়। এছাড়া ঘটনাটি তদন্তের জন্য ৫ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে জানায় বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

প্রধান শিক্ষক মাইন উদ্দিন সাংবাদিকদের জানান, শনিবার (৪ নভেম্বর) বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে ৮ জনের মধ্যে ৪ জন বিজয়ী এবং ৪ পরাজিত হয়। এদের মধ্যে ৭ নাম্বার ব্যালটের প্রার্থী সাহাব উদ্দিন পরাজিত হওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে এ বিদ্যালয়ে ভাংচুর ও তালা ঝুলিয়ে দেন বলে জানান তিনি।

কুশাখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বিদ্যালয়ে ভাঙচুর ও তালা ঝুলিয়ে দেয়ার ঘটনাটি দুঃখজনক। ঘটনাটি তদন্তের জন্য ৫ সদস্য নিয়ে একটি কমিটি গঠন করা হয়। প্রধান শিক্ষককে থানায় সাধারণ ডায়েরি করার জন্য বলা হয়েছে।

প্রিন্স\ঢাকা