গৌরীপুরে চোর সন্দেহে কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি: গৌরীপুরের ডৌহাখলার চর শ্রীরামপুর গ্রামে চোর সন্দেহে সাগর (১৮) নামে এক কিশোরকে নির্যাতন করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।সোমবার চুরির অভিযোগে সাগরকে হাত পা বেঁেধ বেধড়ক পেটানোর প্রায় ৩০ ঘন্টা পর আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টায় তার লাশ ঘটনাস্থলের পাশে কাশবনে পাওয়া গেছে। নিহত সাগর ময়মনসিংহ শহরের নাটকঘর লেন এলাকার রেল বস্তির ভাঙ্গারী ব্যবসায়ী শিপন মিয়ার ছেলে।পুলিশ হ্যাচারী মালিক আক্কাছ আলীকে গ্রেফতারের চেষ্টা করছে।

গৌরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) দেলোয়ার আহমেদ জানায়,আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টায় ডৌহাখলার চর শ্রীরামপুর এলাকায় কাশবন থেকে সাগর নামে এক কিশোরের মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে স্থানীয় এলাকাবাসী জানায়, গতকাল সোমবার ভোরে চরশ্রীরামপুরের গাউছিয়া মৎস্য প্রজনন কেন্দ্রে ও হ্যাচারীতে সাগরকে পানির মটর চুরির অভিযোগে আটক করে হ্যাচারী মালিক আক্কাছ আলী ও তার সঙ্গীয় লোকজন। এরপরই সাগরকে সাইনবোর্ডের খুটির সাথে বেঁধে বেধড়ক নির্যাতন করে । কিছক্ষণ পর সাগরকে আর ঘটনাস্থলে দেখা যায়নি।

নিহত সাগরের বাবা শিপন মিয়া প্রতিচ্ছবিকে জানান, তার ছেলে সাগর মিয়া, বয়স ১৮। তাদের বাসা ময়মনসিংহ শহরের নাটকঘর লেন সংলগ্ন রেলওয়ে বস্তিতে। সাগর ভাংগারী ব্যবসা করতো । তার ছেলে কখনও চুরি করতে পারে না।

গৗরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) দেলোয়ার আহমেদ আরো জানান, সাগরের নামে এর আগে চুরির কোনো মামলা ছিল না। সাগরের বাবা বাদী হয়ে গাউছিয়া হ্যাচারীর মালিক আক্কাছ আলী সহ অজ্ঞাত আরও ৫/৬জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন বলে পুলিশ জানায়।

কাজী মোহাম্মদ মোস্তফা
ময়মনসিংহ