ফুলবাড়ীতে কবি ও গল্পকার তমসুর হোসেনের ৬০তম জন্ম বার্ষিকী পালন

জাকারিয়া মিঞা, ফুলবাড়ী: আশির দশকের অন্যতম কবি ও গল্পকার ফুলবাড়ী সাহিত্য পরিষদের উপদেষ্টা তমসুর হোসেনের ৬০তম জন্ম বার্ষিকী কবির বাসস্থান কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে পালন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে ২২ সেপ্টেম্বর শুক্রবার বিকালে ফুলবাড়ী সাহিত্য পরিষদ ও উপজেলা প্রেসক্লাবের উদ্যোগে প্রেসক্লাব র্কাযালয়ে আয়োজন করা হয় আলোচনা সভা, কবিতা পাঠ ও সংবর্ধনা প্রদান অনুষ্ঠানের। ফুলবাড়ী সাহিত্য পরিষদের সহ-সভাপতি চারণকবি আজিজুল হাকিম মন্ডলের সভাপতিত্বে ও সাংবাদিক ইউনুছ আলী আনন্দের সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন।

ফুলবাড়ী সাহিত্য পরিষদের সাধারন সম্পাদক সহকারী অধ্যাপক ও গল্পকার আব্দুল হানিফ সরকার, ফুলবাড়ী উপজেলা প্রেসক্লাবের সহ-সাধারন সম্পাদক মাহবুব হোসেন সরকার লিটু, প্রেসক্লাবের সিনিয়র সদস্য ও চলচ্চিত্র অভিনেতা আব্দুল জলিল পারভেজ, ফুলবাড়ী সাহিত্য পরিষদের কোষাধ্যক্ষ লেখক সিরাজুল ইসলাম প্রমূখ। এ অনুষ্ঠানে একাত্বতা প্রকাশ করে ফুলবাড়ী উপজেলার স্বনামধন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেবেন্দ্র নাথ উরাঁও বলেন, একজন কবি ও গল্পকারকে সংর্বধনা প্রদান করা মহৎ উদ্যোগ।

তিনি এ উদ্যোগের সফলতা কামনা করেন। এতে লিখনী ও আত্মজীবনী সম্পর্কে সবার উদ্দ্যেশে আলোচনা করেন কবি ও গল্পকার তমসুর হোসেন। তিনি তার ব্যক্তি জীবনের ৬০তম জন্ম বার্ষিকী আনুষ্ঠানিকভাবে পালনের জন্য আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান। এ সময় তিনি বলেন, আমি অন্যান্য সম্মানী লেখকদের লেখা পড়ে ও অনেকের সঙ্গে মিশে লিখনীর জন্য নিজস্ব ভাষা আবিষ্কার করে লেখা শুরু করি। পাশাপাশি তার শশুর রংপুরের বিখ্যাত ভাওয়াইয়া

শিল্পী প্রয়াত কছিমুদ্দিনের গানের কথা তার লিখনীর প্রেরণা যুগিয়েছে বলে জানান তিনি। আলোচনা ও কবিতা পাঠ শেষে কবি ও গল্পকার তমসুর হোসেনকে সম্মাননা স্¥ারক হিসেবে ফুলবাড়ী সাহিত্য পরিষদ থেকে ক্রেস্ট ও গল্পকার আব্দুল হানিফ সরকারের পক্ষ থেকে উপহার সামগ্রী দেওয়া হয়। এতে অন্যান্যর মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রেসক্লাবের সদস্য রতন চন্দ্র সেন, আফরোজা খাতুন, ফুলবাড়ী সাহিত্য পরিষদ সদস্য জাকির হোসেন, মুসা আলী নীরব, হাফিজুর রহমান, নুর ইসলাম নাহিদ প্রমূখ।