সৈয়দ মহসিন আলী সম্পদ বিক্রি করে মানুষের সেবা করেছেন

নিউজ ডেস্ক: জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ বলেছেন, ‘সততা, নিষ্ঠা ও যোগ্যতায় অনেক গুণের অধিকারী ছিলেন সৈয়দ মহসিন আলী। মানুষের কল্যাণ করতে যে আনন্দ, আমরা তা তাঁর মধ্যে দেখেছি। রাজনীতিতে আসলে অনেকে আঙুল ফুলে কলাগাছ হয় গ্রামে এ রকম প্রবাদ আছে। কিন্তু তিনি মৃত্যুর আগেও নিজের সম্পদ বিক্রি করে মানুষের সেবায় বিলিয়ে গেছেন।’

শুক্রবার বিকেলে মৌলভীবাজার পৌর জনমিলন কেন্দ্রে সাবেক সমাজকল্যাণমন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলীর দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আ স ম ফিরোজ এসব কথা বলেন। বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ মহসিন আলী ফাউন্ডেশন এই সভার আয়োজন করে। সভায় সভাপতিত্ব করেন ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও সাংসদ সৈয়দা সায়রা মহসিন। ফাউন্ডেশনের সদস্য দেবাশীষ রায় ও মহসিন আলীর মেয়ে সৈয়দা সাবরিনা শারমীনের যৌথ সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন জাতীয় সংসদের হুইপ শাহাব উদ্দিন আহমদ, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য মো. রফিকুর রহমান, মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মো. ফিরোজ, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন প্রমুখ।

হুইপ শাহাব উদ্দিন আহমদ বলেন, সৈয়দ মহসিন আলী বড় মন ও মাপের মানুষ ছিলেন। তৃণমূলের কোনো নেতা-কর্মী তাঁর কাছে এলে তাঁদের কাজ করে দিতেন। না হলে চেষ্টা করতেন। তিনি মনে-প্রাণে মানুষকে ভালোবাসতেন। মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি তাঁর খুব দরদ ছিল। তাঁর আদর্শ ধরে রাখার চেষ্টা করতে হবে। তাঁর জীবন থেকে অনেক কিছু শেখার আছে।

জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান বলেন, সংগঠনের ওপর যখনই আক্রমণ হয়েছে, মহসিন আলী বুক দিয়ে সংগঠনকে আগলে রেখেছেন। সাধারণ মানুষ, জাতি ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবাইকে তিনি ভালোবাসতেন। একজন সাদামনের মানুষ ছিলেন তিনি।

সভা শেষে চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ মৌলভীবাজার জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে সৈয়দ মহসিন আলীর কর্মময় জীবনের ওপর আলোকচিত্রী রণজিত দত্ত জনির একক আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন।