আবারও নিষেধাজ্ঞায় উত্তর কোরিয়া

নিউজ ডেস্ক: চীন ও রাশিয়ার সমর্থনে সর্বসম্মতভাবে উত্তর কোরিয়ার ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে জাতিসংঘ। উত্তর কোরিয়ার ষষ্ঠ এবং বড় ধরনের পরমাণু পরীক্ষার পর এই পদক্ষেপ নেওয়া হলো।

বিবিসির খবরে জানা যায়, উত্তর কোরিয়ার তেল আমদানি ও কাপড় রপ্তানির বিষয়টি নতুন এই নিষেধাজ্ঞায় রয়েছে। নিষেধাজ্ঞার তালিকায় রয়েছে কয়লা, সিসা তৈরিও। আছে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের সম্পদ জব্দ করার বিষয়টিও। তেল আমদানিতে এর আগেও যুক্তরাষ্ট্র কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। জাতিসংঘে এই নিষেধাজ্ঞার পক্ষে ১৫টি ভোট পড়ে। বিপক্ষে একটিও ভোট পড়েনি।

পিয়ংইয়ং হাইড্রোজেন বোমা বানাচ্ছে বলে দাবি করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের ওপর হামলার ব্যাপারে দেশটি হুমকি দেওয়া বজায় রেখেছে।

পরমাণু কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার কারণে উত্তর কোরিয়ার ওপর এমনিতেই জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। গত সপ্তাহে ঘোষিত কঠোর কয়েকটি প্রস্তাব থেকে যুক্তরাষ্ট্র সরে আসার পর গতকাল সোমবার উত্তর কোরিয়ার ওপর নতুন অবরোধ আরোপে সম্মত হলো জাতিসংঘ।

উত্তর কোরিয়ার সরকারি সংবাদ সংস্থা কেএনসিএ এক বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রকে ‘রক্তপিপাসু পশু’ হিসেবে চিহ্নিত করেছে। উত্তর কোরিয়া হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছে, যদি যুক্তরাষ্ট্র কঠোর চাপ দেওয়া অব্যাহত রাখে, তাহলে তাদের এর দাম দিতে হবে।

পিয়ংইয়ংয়ের আয়ের অন্যতম উৎস হলো কাপড়। এতে নিষেধাজ্ঞা জারি হলে দেশটি অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিকভাবে ক্ষতির সম্মুখীন হবে।

ভোটাভুটির পর জাতিসংঘে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত নিকি হেলি বলেন, ‘আরও নিষেধাজ্ঞা আরোপে আমাদের কোনো আনন্দ নেই। আমরা যুদ্ধ ডেকে আনতে চাই না।’