লক্ষীপুরে যৌতুকের দাবীতে গৃহবধুর হত্যার অভিযোগ

লক্ষীপুর প্রতিনিধি: লক্ষীপুরের রায়পুর উপজেলার বামনী ইউনিয়নের বাংলাবাজার এলাকা থেকে রুনু আক্তার নামে এক গৃবধুর লাশ উদ্ধার করে আজ শুক্রবার দুপুরে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে স্বামী ফেরদৌস মোল্লা পলাতক রয়েছে। নিহত গৃহবধুকে যৌতুক ও পারিবারিক কলহের জের ধরে শ‌্বাসরোধ ও মুখে বিষ ঢেলে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে।

নিহতের স্বজনরা জানায়, বিয়ের পর থেকে রুনু আক্তারকে স্বামী ফেরদৌস মোল্লা ও তার পরিবারের লোকজন যৌতুকের জন্য চাপ দিয়ে আসছে। এ নিয়ে প্রায় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হত। এর জের ধরে বৃহস্পতিবার রাতে রুনুকে বেদম মারধর করে। এক পর্যায়ে শ‌্বাসরোধ ও মুখে বিষ ঢেলে হত্যার চেষ্টা করে। পরে তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে গৃহবধুকে উদ্ধার করে প্রথমে রায়পুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে অবস্থার অবনতি হওয়ায় আজ শুক্রবার ভোররাতে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সদর হাসপাতালে আনার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

রায়পুর থানার ওসি তদন্ত মো. সোলায়ামান হোসেন জানান, নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদেন্তর জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। স্বামীকে গ্রেপ্তারের অভিযান চলছে।