নাবিক তৈরিতে পর্যাপ্ত প্রশিক্ষণ প্রয়োজন

নিউজ ডেস্ক: আন্তর্জাতিক নৌ-সংস্থার (আইএমও) মহাসচিব কিতক লিম বলেছেন, নাবিক একটি চ্যালেঞ্জিং পেশা। এ পেশায় নতুন নতুন চ্যালেঞ্জ আসছে। নাবিক পেশায় দক্ষ জনশক্তির সংকট রয়েছে উল্লেখ করে তিনি দক্ষ নাবিক তৈরিতে পর্যাপ্ত প্রশিক্ষণের প্রয়োজনীয়তার উপর গুরুত্বারোপ করেন।

রোববার রাজধানীর হোটেল রেডিসন ব্লু-তে ‘স্ট্র্যাটেজিস ফর প্রফেশনাল ডেভেলপমেন্ট অব সিফেয়ারার্স ইন গ্লোবাল শিপিং’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন।

আইএমও মহাসচিব বলেন, নবীনরা যাতে জাহাজের নাবিকের পেশায় আসে সে জন্য আগ্রহ সৃষ্টি করতে হবে। অর্থনীতির বড় একটি ফ্যাক্টর মেরিটাইম সেক্টর। মেরিটাইম সেক্টরের উন্নয়নে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

আইএমও-তে বাংলাদেশের ভূমিকা প্রশংসনীয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, আইএমও’র নীতিনির্ধারণীসহ বিভিন্ন বিষয়ে বাংলাদেশ সক্রিয় ভূমিকা পালন করছে।

নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মেরিটাইম ইউনিটের সচিব রিয়ার এডমিরাল (অব.) মো. খুরশেদ আলম, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য রিয়ার এডমিরাল আব্দুল বাতেন এবং নৌপরিবহন অধিদফতরের মহাপরিচালক কমডোর সৈয়দ আরিফুল ইসলাম।

উল্লেখ্য, জাতিসংঘের বিশেষায়িত সংস্থা আন্তর্জাতিক নৌ সংস্থার (আইএমও) সেক্রেটারি জেনারেল কিতক লিম গত শনিবার বিকেলে ঢাকায় আসেন। সেমিনারে অংশগ্রহণের পাশাপাশি তিনি চট্টগ্রামস্থ মেরিন একাডেমি, চট্টগ্রাম বন্দর, ন্যাশনাল মেরিটাইম ইনস্টিটিউট, প্রাইভেট শিপইয়ার্ড এবং শিপ রিসাইক্লিং ইয়ার্ড পরিদর্শন করবেন। সফরকালে তিনি রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং কোস্টগার্ড-এর মহাপরিচালকের সঙ্গে স্বাক্ষাত করবেন। এ ছাড়াও তিনি বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শন করবেন। ২৯ আগস্ট রাতে ঢাকা ত্যাগ করবেন।