ফোকফেস্ট ২০১৭ তে বাংলাদেশী প্যাভেলিয়ন

নিউজ ডেস্ক: গত ১৭ থেকে ১৯ আগস্ট কানাডার সাস্কাচুয়ান প্রদেশের সাসকাটুনে উদযাপিত হলো কানাডায় বসবাসকারী বহুজাতিক ও বিশ্ব সংস্কৃতির প্রাণের উৎসব ফোকফেস্ট-২০১৭। ৩৮ তম ফোকফেস্ট এ বাংলাদেশ কমিউনিটি অ্যাসোসিয়েশন অব সাস্কাচুয়ান (বিকাশ) এর উদ্যোগে সাসকাটুন প্রবাসীবাংলাদেশিরা সপ্তম বারের মতো এই অনুষ্ঠানেঅংশগ্রহণ করলো।

প্রেইরিল্যান্ড পার্কে ১৭ আগস্ট বিকাল ৫টায় বাংলাদেশ ও কানাডার জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের পর্দা উঠে। । তারপর বিকাশের সভাপতি জাকির হোসেনের ভাষনের মাধ্যমে ফোকফেস্ট ২০১৭ এর যাত্রা শুরু হয়।

১৭ ও ১৮ আগস্ট (বৃহস্পতি ও শুক্রবার ) বিকেল ৫টা থেকে রাত ১২ টা এবং ১৯ আগস্ট ( শনিবার ) বিকেল ৩ টা থেকে রাত ১২ টা পর্যন্ত অনুষ্ঠান চলে। এবারই প্রথম উন্মুক্ত মাঠে অনেকগুলো দেশের প্যাভেলিয়ন পাশাপাশি হওয়ায় দর্শক সমাগম ঘটে প্রচুর। বাংলাদেশীদের একান্ত  নিজস্ব সংস্কৃতির বিভিন্ন উপাদানের মাধ্যমে পরিবেশিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান বিভিন্ন দেশের দর্শকদের মুগ্ধ করেছে।

বাংলার প্রিয় বর্ষা, পাহাড়ি নৃত্য, বাউল সঙ্গীত , বাংলা সঙ্গীতে সেতারসহ বিভিন্ন বাদ্যযন্ত্রের সমাহার, ঢাক, গ্রামীণ জীবন ও বিয়ে, রবীন্দ্র নাথ ঠাকুরের কবিতা ও সঙ্গীত,নজ্রুল ও লালনগীতি, বাংলা স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের পরিবেশনায় গেড়িলা আমরা গেড়িলা ও একদিন বাঙ্গালী ছিলাম রে, পদাবলী, উচ্চাঙ্গ সঙ্গীত ও লোকজ সঙ্গীত উপস্থিত সকল দর্শককে মুগ্ধ করে।

আমাদের ঐতিয্য ও নিজস্ব সংস্কৃতির বিভিন্ন উপাদান দিয়ে সাজানো হয়েছিল বাংলাদেশ প্যাভিলিয়ন। বিভিন্ন স্টলে আমাদের পোশাক, শাড়ি, গয়না, মেহেদি আমাদের জীবনধারাকে সুন্দরভাবে তুলে ধরেছে। অনুষ্ঠানের শেষ দিনে ফোকফেস্ট এর প্রেসিডেন্ট নেইল আরভিন, ফোকফেস্ট ২০১৭ এর অনারারী এম্বাস্যাডর ভাস্কর পন্ডিত, ফোকফেস্ট সদস্য জয় কালরা এবং স্যাম সাম্বাসিভামসহ আরো অনেকেই বাংলাদেশী প্যাভেলিয়ন পরিদর্শন করেন।

তরুন রিয়েলেটর ও বাংলাদেশ প্যাভেলিয়নের এম্বাস্যাডর প্রিয়াঙ্কা নন্দী বলেন- এমন খাঁটি বাঙালি , মনোমুগ্ধকর আর নয়নাভিরাম অনুষ্ঠানমালা এবং শীত আসার আগে বাংলাদেশীদের মিলনমেলা এককথায় অসাধারন। বাংলাদেশ কমিউনিটি অ্যাসোসিয়েশন অব সাস্কাচুয়ান (বিকাশ) এর সভাপতি জাকির হোসেন ভলান্টিয়ার, স্পন্সরসহ সকল প্রবাসীদের সাফল্যজনকভাবে অনুষ্ঠান পরিসমাপ্তির জন্য ধন্যবাদ ও অগ্রিম ঈদ-উল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়ে সমাপ্তি ঘোষনা করেন।