প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ব্যাংক উদ্যোক্তাদের ৮৫ কোটি টাকা অনুদান

নিউজ ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিলে ৮৫ কোটি টাকা অনুদান দিয়েছেন বিভিন্ন ব্যাংকের চেয়ারম্যানরা। গতকাল প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এক অনুষ্ঠানে এসব চেক গ্রহণ করেন শেখ হাসিনা। বাসস জানায়, অনুষ্ঠানে ব্যাংক উদ্যোক্তাদের সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকসের (বিএবি) চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মজুমদার ও আওয়ামী লীগের সভাপতির বেসরকারি খাতবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান উপস্থিত ছিলেন।

বিএবি সূত্র জানায়, ২০ আগস্ট বিএবির চেয়ারম্যানের সভাপতিত্বে সংগঠনটির ১৯০তম নির্বাহী কমিটির সভা হয়। সভায় করপোরেট সামাজিক দায়বদ্ধতা (সিএসআর) কর্মসূচির অংশ হিসেবে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্যার্থে ১০০ কোটি টাকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। এ নিয়ে বিএবির সেক্রেটারি জেনারেল আবদুর রহমান সরকার স্বাক্ষরিত চিঠিতে ব্যাংকের চেয়ারম্যানদের বলা হয়, প্রতিটি ব্যাংক ৩ কোটি টাকা দেবে। নতুন ব্যাংকগুলো ৫০ লাখ টাকা করে দেবে। সব অর্থ করমুক্ত হিসেবে বিবেচিত হবে। বৃহৎ ব্যাংক হিসেবে ইসলামী ব্যাংক ১০ কোটি টাকা দেবে। অন্য কয়েকটি ব্যাংক ৩ কোটি টাকার বেশি দিতে সম্মত হয়েছে।

তবে ইসলামী ব্যাংক গতকাল এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, ব্যাংকটির ভাইস চেয়ারম্যান ও দুদকের সাবেক কমিশনার মো. সাহাবুদ্দিন প্রধানমন্ত্রীর কাছে ৫ কোটি টাকার চেক তুলে দিয়েছেন।

এর আগে গত ১৫ মে প্রধানমন্ত্রীর হাতে ১৩৬ কোটি ২০ লাখ টাকার চেক তুলে দেন ব্যাংকের চেয়ারম্যানরা। এর মধ্যে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেমোরিয়াল ট্রাস্টে ৫৭ কোটি ৪৫ লাখ টাকা দেওয়া হয়। এ ছাড়া সায়মা ওয়াজেদ হোসেনের সূচনা ফাউন্ডেশনে দেওয়া হয় ২৮ কোটি ৫০ লাখ টাকা। এতে ইসলামী ব্যাংক দেয় ১৫ কোটি ও ন্যাশনাল ব্যাংক ৬ কোটি।

এর আগে ২০১৬ সালের ২৭ জুন প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ৬৭ কোটি টাকা দেয় বিভিন্ন ব্যাংক এবং বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়। ২০১৫ সালে অক্টোবরে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ২৫ কোটি ৮০ লাখ দেন ব্যাংকের চেয়ারম্যানরা। ২০১২ সালে বিএবির সদস্যরা ২০ কোটি টাকা অনুদান দেন।