সালাম না দেয়ায় ২ শিক্ষার্থীকে হল ছাড়া করলো ছাত্রলীগ

নিউজ ডেস্ক: সালাম না দেয়ার অভিযোগ তুলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সলিমুল্লাহ মুসলিম (এসএম) হলের দুইজন আবাসিক ছাত্রকে মারধরের পর হল ছাড়া করার অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে। এসএম হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি তাহসান আহমেদ রাসেল গ্রুপের নেতাকর্মীরা এই কাজ করেছে। মারধরের স্বীকার হওয়া দুই ছাত্র হলো লোকপ্রশাসন বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শামিমুর রহমার ও একই বর্ষের বাংলা বিভাগের আতিকুর রহমান।

ভুক্তভোগী ছাত্ররা জানান, গত সোমবার হলের গেস্টরুম থেকে দেখার পরও কেন সালাম দেয়া হয় না, তার জবাবদিহী করতে ওই দুই ছাত্রসহ মোট তিনজনকে ১৭৭ নং কক্ষে ডাকেন শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের তৃতীয় বর্ষের সাদিক খান। সেখানেও শামিম ও আতিকুর সালাম না দিয়ে প্রবেশ করলে তাদের চড়থাপ্পড় দেন সাদিক খান। পরে লাঠি ও রড দিয়ে মারধর করেন পরিসংখ্যান বিভাগের তানভীর ও সৌরভ, জনসংখ্যা বিজ্ঞান বিভাগের তাহের, ফারসি বিভাগের সফিউল্লাহ, সংস্কৃত বিভাগের সোহরাব। এরা সবাই তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। সভাপতি তাহসানের কাছ থেকে ছাত্রদেরকে রুমে ঢুকিয়ে মারার অনুমতি নিয়েছিলেন বলেও জানা যায়।

এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার সকালে তাহসান গ্রুপের সকল দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মারধরের ঘটনার প্রতিবাদ জানায়। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে শামিমুর রহমার ও আতিকুরকে স্থায়ীভাবে হল থেকে বের করে দেয়ার নির্দেশ দেন তাহসান আহমেদ। পরে হলের সিনিয়ররা তাহসানকে বুঝিয়ে তাদের হলে ফিরিয়ে আনলেও বুধবার আবার তাদের বের করে দেয়া হয়।

মারধরের বিষয়ে অভিযুক্ত সাদিক বলেন, তাদেরকে মারধর করা হয়নি। ওই দুই ছাত্র হলে আছে বলেও জানান তিনি। তবে হলের সভাপতি তাহসান আহমেদ রাসেল বলেন, বেয়াদবির কারণে তাদের হল থেকে বের করে দেয়া হয়েছে। তারা কোথায় থাকবে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তাদের বাসা আছে সাভার সেখানে থাকবে।