মুমিনুল-মাহমুদউল্লাহকে ছাড়াই টেস্ট দল

নিউজ ডেস্ক: আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আবির্ভাবেই মুমিনুল হকের ব্যাটে মিলেছিল একজন পরিপূর্ণ ব্যাটসম্যানের ছায়া। রানের ফল্গুধারা বইয়ে আস্থাও অর্জন করেছিলেন তিনি। বাংলাদেশের ক্রিকেটে চন্ডিকা হাতুরুসিংহে যুগ শুরু হতেই নড়বড়ে হতে থাকে এ তরুণের অবস্থান। ২০১৫ সালে ওয়ানডে দল থেকে বাদ পড়ার পর মুমিনুল হয়ে গেলেন টেস্ট স্পেশালিষ্ট। শর্ট বল খেলতে না পারার অপবাদও ঘোচালেন দাপটের সঙ্গে।

সর্বশেষ ভারত-শ্রীলঙ্কা সফরের পর এ বাঁহাতির পেছনে যোগ হয়েছে অফ স্পিন খেলতে না পারার অভিযোগ। গত মার্চে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দেশের শততম টেস্টের একাদশ থেকে বাদ পড়েছিলেন তিনি। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে আসন্ন হোম সিরিজে মুমিনুলের জন্য অপেক্ষা করছে আরো কঠিন খবর।

বিসিবির বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের দলেই নেই মুমিনুল! প্রথম টেস্টের জন্য নির্বাচকদের গড়া ১৪ সদস্যের দলে নাকি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদেরও ঠাঁই হয়নি। তবে টেস্ট দলে ফিরছেন নাসির হোসেন।

সূত্র জানায়, নির্বাচকরা দল প্রস্তুত করেছেন। শ্রীলঙ্কায় শেষ টেস্ট জিতেছিল বাংলাদেশ। তাই অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে উইনিং কম্বিনেশন ভাঙতে চায় না টিম ম্যানেজমেন্ট।

জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু গতকাল জানিয়েছেন, ১৯ আগস্ট ঘোষণা করা হতে পারে বাংলাদেশ টেস্ট দল।

সন্দেহাতীতভাবে গত কয়েক বছরে টেস্টে বাংলাদেশের সবচেয়ে সফল ব্যাটসম্যান মুমিনুল। ২২ টেস্টে ৪৬ দশমিক ৮৮ গড়ে ১ হাজার ৬৮৮ রান করেছেন তিনি। এ ফরম্যাটে দেশের পক্ষে সবচেয়ে ভালো ব্যাটিং গড় তারই। দেশের মাটিতে তার ব্যাটিং গড় আরও ঈর্ষণীয়, ৫৮ দশমিক ০৯। ক্যারিয়ারের চার সেঞ্চুরি সবকটিই ঘরের মাঠে। টেস্ট ক্রিকেটে টানা ১১ ম্যাচে পঞ্চাশোর্ধ্ব ইনিংস খেলে স্যার ভিভ রিচার্ডস, শেবাগ-গম্ভীরদের কাতারে নাম লিখিয়েছেন মুমিনুল ২০১৫ সালেই। টানা ১২ ম্যাচে পঞ্চাশোর্ধ্ব ইনিংস খেলে বিশ্ব রেকর্ডটা এবি ডি ভিলিয়ার্সের দখলে।
অথচ অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে হোম সিরিজে হাতুরুসিংহের সমীকরণে নেই মুমিনুল! ভারত ও শ্রীলঙ্কায় দুটি টেস্টে বড় রান না পাওয়া এ ব্যাটসম্যানের প্রতি হাতুরুসিংহের অনাস্থা অনেক আগেই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল। যদিও দুই টেস্ট আগেই হাফ সেঞ্চুরি করেছিলেন তিনি। নিউজিল্যান্ডে প্রথম টেস্টে ৬৮ রান করেছিলেন তিনি।

ক্যারিয়ারের শুরু থেকে চার নম্বরে ব্যাট করতেন ২৫ বছর বয়সী এ ব্যাটসম্যান। হাতুরুসিংহে আসার পর ২০০৪ সালের অক্টোবরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ দিয়েই টেস্টে তিনে ব্যাটিং শুরু মুমিনুলের। চার নম্বরে তিনটি সেঞ্চুরির পর তিনেও একটি সেঞ্চুরি আছে তার।

শ্রীলঙ্কায় দ্বিতীয় টেস্টের দল থেকে বাদ পড়া মাহমুদউল্লাহ এবারো দলে থাকছেন না। ওপেনিংয়ে তামিম-সৌম্য, তিনে মুমিনুলের জায়গায় ইমরুলকে দেখা যাবে। সাকিব, মিরাজ, তাইজুলকে নিয়ে স্পিন বিভাগ। পেস আক্রমণে মুস্তাফিজ, তাসকিন ও প্রস্তুতি ম্যাচে দারুণ বোলিং করা শফিউল। অধিনায়ক মুশফিক, সাব্বির ছাড়া অফস্পিনিং অলরাউন্ডার কোটায় থাকছেন মোসাদ্দেক ও ঘরোয়া ক্রিকেটে ধারাবাহিক পারফরম্যান্স করে টেস্ট দলে ফেরা নাসির। বিকল্প উইকেটকিপার হিসেবে লিটন দাস দলে থাকছেন।

রথম টেস্টের সম্ভাব্য বাংলাদেশ দল

তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, সাব্বির রহমান, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, শফিউল ইসলাম, মুস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ, নাসির হোসেন ও লিটন দাস।