বঙ্গবন্ধুকে ছোট করলে নিজেই ছোট হবেন :নাসিম

নিউজ ডেস্ক:  আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য ও শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র থেমে নেই, ষড়যন্ত্র চলছেই। বঙ্গবন্ধুকে হেয় করার অপচেষ্টা হচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে সাড়ে সাত কোটি বাঙালি জেগে উঠেছিল এবং বঙ্গবন্ধুর একক নেতৃত্বেই বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে। তাই কোনো বিজ্ঞ লোক কিছু বলে বঙ্গবন্ধুকে হেয় করতে পারবেন না। জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে গতকাল বুধবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

আমির হোসেন আমু বলেন, বাংলাদেশকে যখন অর্থনৈতিক মুক্তির লক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন, তখনই বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করা হয়। এরপর জাতীয় চার নেতাকে হত্যা করা হয়। সংবিধানের মূলনীতি মুছে ফেলার চেষ্টা হয়। এসবের মধ্য দিয়ে প্রমাণিত হয় বঙ্গবন্ধু হত্যাকণ্ড কোনো ব্যক্তি ও শুধুমাত্র একটি পরিবারকে নিয়ে নয়, এ হত্যাকাণ্ড ছিল গোটা বাঙালি জাতি, দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের বিরুদ্ধে।

আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ সর্বক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে। তিনি বলেন, আদালতের প্রতি সম্মান রেখেই বলছি, বঙ্গবন্ধুকে ছোট করার ক্ষমতা কারোর নেই। বঙ্গবন্ধুকে কেউ ছোট করতে চাইলে তিনি নিজেই ছোট হয়ে যাবেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খানের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক, বিএমএ’র সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. মোঃ হাবিবে মিল্লাত, আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, স্বাধীনতা চিকিত্সক পরিষদ (স্বাচিপ)-এর সভাপতি অধ্যাপক ডা. এম ইকবাল আর্সলান, বিএমএ মহাসচিব ডা. মোঃ ইহতেশামুল হক চৌধুরী দুলাল, বিএসএমএমইউয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মোঃ শারফুদ্দিন আহমেদ, উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মোঃ শহীদুল্লাহ সিকদার, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. এএসএম জাকারিয়া স্বপন প্রমুখ।