রাবি’তে কোষাধ্যক্ষের পদ শূন্য থাকায় কার্যক্রম স্থবির

নিউজ ডেস্ক: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) কোষাধ্যক্ষ পদ প্রায় তিন মাস ধরে শূন্য রয়েছে। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বার্ষিক বাজেট প্রণয়ন, ফিন্যান্স কমিটির কার্যক্রমসহ বিভিন্ন খাতে অর্থ বরাদ্দের কার্যক্রমে স্থবিরতা ও অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

দেশের অধিকাংশ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বার্ষিক বাজেট পাশ করিয়ে নিলেও কোষাধ্যক্ষ না থাকায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় এখনো বার্ষিক বাজেট প্রণয়ন করতে পারেনি। চার বছর মেয়াদী ৩৬৩ কোটি টাকার একনেক প্রকল্পটিও কোষাধ্যক্ষ না থাকায় থমকে আছে। উক্ত প্রকল্পে শিক্ষার্থীদের দুইটি আবাসিক হল, শিক্ষকদের উন্নত মানের কোয়ার্টার, প্রধান ফটকের সামনে ফুটওভার ব্রিজ, নির্মাণাধীন ভবনের নির্মাণ কাজ চার বছরের মধ্যে শেষ করার নির্দেশনা রয়েছে।

না পারলে বাকি অর্থ সরকারে ফান্ডে ফেরত চলে যাবে বলে একনেকের অনুমোদনের শর্তে উল্লেখ রয়েছে। অথচ প্রায় আট মাস পেরিয়ে গেলেও উক্ত প্রকল্পে দৃশ্যমান কোনো পদক্ষেপ নিতে পারেনি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আবদুস সোবহান বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ নিয়োগ দিয়ে থাকেন রাষ্ট্রপতি। এ বিষয়ে উপাচার্য কিংবা উপ-উপাচার্যের কিছু করার নেই। কোষাধ্যক্ষের দায়িত্ব উপ-উপাচার্য সাময়িকভাবে দেখভাল করলেও পদশূন্য থাকায় বড় ধরনের কাজগুলো করা সম্ভব হচ্ছে না।’

জানতে চাইলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (বিশ্ববিদ্যালয়) আব্দুল্লাহ আল হাসান চৌধুরী বলেন, ‘কোষাধ্যক্ষ নিয়োগের কাজ চলছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় দ্রুত চ্যান্সেলর ও রাষ্ট্রপতি দপ্তরে ফাইল পাঠাবে। রাষ্ট্রপতির সম্মতি সাপেক্ষে দ্রুত কোষাধ্যক্ষ নিয়োগ করা হবে।’