বাংলাদেশ মাছ উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করব

নিজস্ব প্রতিবেদক, ময়মনসিংহ: ২০১৯ সালের মধ্যে বাংলাদেশ মাছ উৎপাদনে স্বয়ংম্পূর্ণতা অর্জন করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন ময়মনসিংহস্হ বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনষ্টিটিউটের মহাপরিচালক বিশিষ্ট মৎস্য বিজ্ঞানী ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ।

বিএফআরআই ডিজি আরো বলেন দেশরত্ব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মৎস্য সম্পদের গবেষণায় সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়েছেন। তিনি বলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৩ সালে বিদেশ থেকে একটি জাহাজ এনে সমুদ্রে জরিপ চালিয়েছিলেন। এখনো সেই জরিপ অনুসারেই দেশ চলছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতিমধ্যেই একটি জরিপ জাহাজ এনেছেন, যা ইতিমধ্যেই কাজ শুরু করেছে। এ ছাড়াও সমুদ্রে মাছের জরিপ করতে প্রধানমন্ত্রী আরো একটি বড় জাহাজ ক্রয়ের ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

‘মাছচাষে গড়বো দেশ, বদলে দেব বাংলাদেশ’ এই প্রতিপাদ্য বিষয় নিয়ে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০১৭ উদযাপন উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনষ্টিটিউটের (বিএফআরআই ) উদ্দোগে ময়মনসিংহ শহরের সার্কিট হাউজ মাঠে তিনদিনব্যাপী মৎস্য প্রযুক্তি মেলা শুরু হয়েছে।

এ উপলক্ষ্যে ২১ জুলাই শুক্রবার বিকেলে বিএফআরআই অডিটরিয়ামে তিনদিনব্যাপী মৎস্য প্রযুক্তি মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনষ্টিটিউটের মহাপরিচালক বিশিষ্ট মৎস্য বিজ্ঞানী ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিকল্পণা বিভাগের পরিচালক প্রফেসর ড. মনোরঞ্জন দাস, ময়মনসিংহ অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মোঃ মোজাম্মেল হক, বিএফআরআই সাবেক মহাপরিচালক মোঃ জাহের, বিএফআরআই পরিচালক ড. খলিলুর রহমান, প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোঃ এনামূল হক, বাকৃবি প্রফেসর ড. মোঃ মাহফুজুল হক, মৎস্য অধিদপ্তর ময়মনসিংহ বিভাগের উপ-পরিচালক মোঃ আলেকুজ্জামান, বাংলাদেশ তিলাপিয়া সমিতির সভাপতি রীতিশ পন্ডিত, বাংলাদেশ হ্যাচারী এসোসিয়েশনের সভাপতি মোঃ সাজ্জাদ হোসেন প্রমূখ।

আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে ময়মনসিংহ সার্কিট হাউজ মাঠে তিনদিনব্যাপী মৎস্য প্রযুক্তি মেলার উদ্বোধন করা হয় । মেলায় ২২টি স্টল রয়েছে, এতে সরকারী ও বেসরকারী পর্যায়ের বিভিন্ন উদ্ভাবনী প্রযুক্তিসমূহ স্থান পেয়েছে। মেলা আগামী ২৩ জুলাই পর্যন্ত ।