সামাজিক দায়বদ্ধতা রক্ষায় বেসরকারি টিভি’র উদ্যোগ প্রশংসনীয়: তথ্যমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক: সামাজিক দায়বদ্ধতা রক্ষায় এগিয়ে আসায় বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলগুলোর উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর প্যানপ্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে ইউনিসেফ বাংলাদেশ দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সারা বর্ডাস এডি (ঝধৎধ ইড়ৎফধং ঊফফু)’র সভাপতিত্বে ইউনিসেফের সাথে পাঁচটি বেসরকারি টেলিভিশনের সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী বলেন, ‘বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলগুলো ব্যবসার পাশাপশি সামাজিক দায়বদ্ধতা রক্ষা, বিশেষ করে শিশুকল্যাণে এগিয়ে আসছে, এটি অত্যন্ত প্রশংসনীয় ও আশাব্যঞ্জক।’

তথ্যমন্ত্রীর উপস্থিতিতে ‘শিশুদের জন্য এক মিনিট’ শীর্ষক এ অনুষ্ঠানে ইউনিসেফের পক্ষে সারা বর্ডাস এডি এবং একুশে, বিজয়, একাত্তর, দুরন্ত ও বাংলা টিভি’র পক্ষে যথাক্রমে রাশেদ চৌধুরী, চৌধুরী মহিবুল হাসান, সামিয়া জামান, অভিজিৎ চৌধুরী ও সৈয়দ সামাদুল হক সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেন।

সমঝোতা স্বাক্ষরকারী চ্যানেলগুলো তাদের প্রতিদিনের স¤প্রচারের গুরুত্বপূর্ণ সময়, সন্ধ্যা সাড়ে ছ’টা থেকে রাত সাড়ে দশটা’র মধ্যে এক মিনিট ইউনিসেফ নির্মিত শিশু বিষয়ক ক্ষুদ্র অনুষ্ঠান বিনামূল্যে প্রচার করবে। এই স¤প্রচার কাজটি চ্যানেলগুলোর সংস্থাগত সামাজিক দায়বদ্ধতার অংশ হিসেবে গণ্য হবে।

‘তথ্য মন্ত্রণালয় এই সমঝোতাকে স্বাগত জানায় এবং এই পদক্ষেপ প্রকৃতপক্ষে শিশুদের জন্য গণমাধ্যমের এক ধাপ এগিয়ে আসা। সরকার ও ইউনিসেফের সাথে শিশুকল্যাণে গণমাধ্যমের যুক্ত হওয়ার অর্থ দেশের ভবিষ্যৎ নির্মাণের পথে আরেক ধাপ অগ্রগতি’, বলেন হাসানুল হক ইনু।

মন্ত্রী এসময় গণতন্ত্র ও গণমাধ্যমকে হাতের এপিঠ-ওপিঠ বলে উলে­খ করেন ও শিশুদের সুরক্ষা, শিক্ষা ও শিশু ও মায়ের আপদকালীন সেবায় সুদীর্ঘ ভূমিকার জন্য ইউনিসেফকে অভিনন্দন জানান।

উলে­খ্য, বাংলাদেশ টেলিভিশন, এটিএন বাংলা, দেশ টিভি, বৈশাখী টিভি, সময় টিভি, চ্যানেল ২৪ টিভি এবং গাজী টিভি এর আগে ইউনিসেফের সাথে একই সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করে এবং তারা অনুরূপ স¤প্রচার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।