৭ কোটির মাইলফলকে ইন্টারনেট

নিউজ ডেস্ক:  দেশে কার্যকর ইন্টারনেট সংযোগের সংখ্যা সাত কোটি ছাড়িয়েছে। বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বা বিটিআরসি বলছে, প্রতি ১০০ জনের মধ্যে এখন ইন্টারনেট ব্যবহার করছে প্রায় সাড়ে ৪৪ জন।

ইন্টারনেট ব্যবহারের এ মাইলফলক তৈরি হয় এপ্রিল মাসে। আর মে মাসের শেষে এ সংখ্যা দাঁড়িয়েছে সাত কোটি ১৯ লাখ ৫৬ হাজার।

সর্বশেষ ফেব্রুয়ারি মাসে আনুষ্ঠানিকভাবে গ্রাহক সংখ্যার হিসাবে প্রকাশ করে বিটিআরসি। ওই তথ্য অনুযায়ী, তখন কার্যকর ইন্টারনেট সংযোগ ছিল ছয় কোটি ৭২ লাখ ৪৫ হাজার।

এর মধ্যে এপ্রিল মাসে সংযোগ সাত কোটি পেরিয়ে যায়। সম্প্রতি সংসদে টেলিযোগাযোগ বিভাগ জানায়, এপ্রিলের শেষে কার্যকর ইন্টারনেট সংযোগ ছিল সাত কোটি ৭৭ লাখ ৯৬৯।

এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে মে মাসের তথ্য প্রকাশ না করলেও অপারেটরগুলো বিটিআরসির কাছে যে পরিসংখ্যান জমা দিয়েছে সেখানে বলা হয়েছে, মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ইন্টারনেটে যুক্ত রয়েছে ছয় কোটি ৭৪ লাখ সিম। তবে সেখানে থ্রিজি বা টুজি বিষয়ে আলাদা তথ্য নেই।

ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডারদের মাধ্যমে গ্রাহকরা সংযোগ নিয়েছেন ৪৪ লাখ ৪০ হাজার। আর আরও এক লাখ চার হাজার ইন্টারনেট সংযোগ দেওয়া হয়েছে তিনটি ওয়াইম্যাক্স অপারেটর ও রাষ্ট্রায়ত্ত ল্যান্ডফোন কোম্পানি বিটিসিএলের মাধ্যমে।

এর আগে গত বছরের মার্চে ছয় কোটি ইন্টারনেট সংযোগের মাইলফলকে পৌঁছায় দেশ। ২০১৫ সালের জুলাইতে পাঁচ কোটিতে পৌঁছেছিল ইন্টারনেট সংযোগ।

এসব সংযোগের বিপরীতে এখন সব মিলে প্রায় চারশ জিবিপিএস ব্যান্ডউইথ ব্যবহার হচ্ছে। গত বছর ছয় কোটি সংযোগের সময় মোট ইন্টারনেট ডেটার ব্যবহার ছিল ১৬৩ দশমিক জিবিপিএস।

টেলিকম সংশ্লিষ্টদের মতে, এত বেশি ইন্টারনেট সংযোগ হওয়ার ক্ষেত্রে মোবাইল ফোনের তৃতীয় প্রজন্মের সেবা থ্রিজি গুরত্বপূর্ণ অবদান রেখেছে। এ কারণেই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে ডেটার ব্যবহার।