ময়মনসিংহে সন্ত্রাসী হামলায় ১১ স্কুলছাত্র আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক, ময়মনসিংহ: প্রতিদিনের মত সংসারের কাজ করছিলেন, মমতা ( ৪৫), সেলিনা (৩৫), আনোয়ারা (৩০), মহিলা ডিগ্রী কলেজ ছাত্রী লাকী আত্তার (২০) । হঠাৎ করেই বাড়িতে অনধিকার প্রবেশ করে ২৮- ৩০ জনের একটি গ্রæপ । দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত তারা সকলেই বয়সে কিশোর । কোন কিছু বুঝে ওঠার আগেই বাড়িতে অবস্থানরত এই নারীদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায় এই কিশোর বয়সী সন্ত্রাসীরা ।

সন্ত্রাসীদের অকথ্য হামলায় দিগি¦দিক ছোটাছোঁটি আর ভয়ার্ত চিৎকার শুরু করেন তারা । বলতে থাকেন, আল্লাহর দোহাই আমগরে আর মাইরো না । আমরা কি অপরাধ করছি ? তোমরা কি চাও ? তারপরও থেমে ছিলো না এই সন্ত্রাসীরা । হামলা এরপর ভাংচুর করে।

গতকাল মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে ঘটনাস্থল ময়মনসিংহ শহরের ভাটিকাশর মিশন সংলগ্ন প্রাইমারি স্কুল রোড থেকে ১১ জনকে আটক করে কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশ ও র‌্যাব- ১৪ এর জওয়ানরা ।

আটককৃতরা ময়মনসিংহ শহরের বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দা এবং শহরের জিলাস্কুল এবং নাসিরাবাদ স্কুলের ছাত্র বলে জানা গেছে । আকটকৃতদের মধ্যে একজন ওসির পূত্রসহ আরফিন আলম, মুনির মাসুদ, মাহাররার হোসেন, এ.এন আরবার, ইসমাইল, নাহরিয়ার, মাহমুদুল হকের নাম পাওয়া গেছে ।

র‌্যাব- ১৪ এর মোবাইল টিম, কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, এদিন বিকালে ঐ এলাকার ২৮/ ৩০ জনের সংঘবদ্ধ কিশোর গ্রæপ দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে স্থানীয় বাসিন্দা আব্দুর রাজ্জাকের বাড়িতে ঢুকে পড়ে । এরপর বাড়ির ভেতরে অবস্থানরত নারী লাকী আক্তার, আফরোজা , সেলিনা, মমতাসহ অন্যান্যের ওপর হামলা করে । এক পর্যায়ে বাড়ি ভাংচুর, লটপাট ও সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালায় । নারীরা তাদের আর্তি উল্লেখ করে হাওমাও কেঁদে কেঁদে উপরোল্লিখিত কথা জানান ।বলেন, দিনদুপুরে প্রকাশ্যে এ ঘটনায় আমরা স্তম্ভিত হয়ে পড়ি । আমরা দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই ।

তাদের আর্ত চিৎকারে ঘটনা শুনে এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে পড়ে এবং একত্রিত হয়ে , ঐ দলের ১১ জনকে একটি ঘরে আটক করে র‌্যাব ও কোতোয়ালি থানা পুলিশকে খবর দেয় । খবর পেয়ে পুলিশ ও র‌্যাবের টিম ঘটনাস্থলে এসে তাদেরকে আটক করে কোতোয়ালী থানায় নিয়ে আসে । এলাকাবাসী কাজল ও তাহের জানান, আমরা সময়মত না এলে আরও বড় ধরনের ক্ষতি হয়ে যেতো ।

অভিযানের নেতৃত্বদানকারি কোতোয়ালি মডেল থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) মো: রুকনউদ্দিন জানান, তাদেরকে আটক করা হয়েছে । পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে ।

কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি কামরুল ইসলাম জানান,এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের প্রস্তুতি চলছে ।