গ্রামীণ টেলিকমের ২৮ কর্মচারিকে চাকরিতে পুনর্বহালের নির্দেশ

গ্রামীণ টেলিকমের ২৮ কর্মচারিকে চাকরিতে পুনর্বহালের নির্দেশ
গ্রামীণ টেলিকমের ২৮ কর্মচারিকে চাকরিতে পুনর্বহালের নির্দেশ

নিউজ ডেস্ক:   গ্রামীন টেলিকমের আরো ২৮ জন কর্মচারিকে চাকরিতে পুনর্বহালের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লার হাইকোর্ট বেঞ্চে রবিবার এ আদেশ দেন।

২৮ জন কর্মচারির পক্ষে গ্রামীণ টেলিকম শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সেক্রেটারি ফিরোজ মাহমুদ হাসানের করা এক রিট আবেদনে এ আদেশ দেন আদালত। রিট আবেদনকারীপক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট ইউসুফ আলী। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নওশের মো. রাসেল চৌধুরী।

গ্রামীন টেলিকমের ৯৯ জন কর্মচারিকে গতবছর ২৫ অক্টোবর চাকরি থেকে অপসারণ করা হয়। এদের মধ্যে ২৮ জন রিট আবেদন করেন। এ আবেদনে রিট আবেদনকারীদের চাকরিতে পুনর্বহালের নির্দেশন দেন আদালত।

এর আগে গ্রামীন টেলিকমের ৩৮জন কর্মচারিকে চাকরিতে পুনর্বহাল করতে গতবছর ৬ ডিসেম্বর আদেশ দেন হাইকোর্ট। এ নির্দেশ বাস্তবায়ন না করার অভিযোগ এনে ড. মুহাম্মদ ইউনুস ও আশরাফুল হাসানের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার আবেদন করা হয়।

গ্রামীন টেলিকম শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. কামরুজ্জামান এ আবেদন করেন। এ আবেদনে গত ১৮ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্ট ড. মুহাম্মদ ইউনুস ও আশরাফুল হাসানকে তলব করেন। তাদের ভার্চুয়ালি হাজির হয়ে চাকরিচ্যুত ৩৮ জনকে পুনর্বহাল না করার বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়। একইসঙ্গে তাদের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল জারি করা হয়।

এ আদেশে গত ১৬ মার্চ ড. মুহাম্মদ ইউনুস ও আশরাফুল হাসান ভার্চুয়ালি হাইকোর্টে হাজির হয়ে নিঃশর্ত ক্ষমা চান। আদালত তাদের পরবর্তী তারিখে আদালতে ব্যক্তিগত হাজিরা থেকে অব্যাহতি দেন। তবে তাদের বিরুদ্ধে জারি করা আদালত অবমাননার রুলের ওপর ২২ এপ্রিল শুনানির দিন ধার্য করেন।