রাজধানীর শংকর এলাকা বিএনপির মশাল মিছিল

রাজধানীর শংকর এলাকা বিএনপির মশাল মিছিল
রাজধানীর শংকর এলাকা বিএনপির মশাল মিছিল

নিউজ ডেস্ক:    বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি এবং সরকারি হেফাজতে লেখক মুশতাকের মৃত্যুর প্রতিবাদে রাজধানীতে মশাল মিছিল করেছেন দলটির নেতাকর্মীরা। শুক্রবার দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর নেতৃত্বে রাজধানীর শংকর এলাকা থেকে ধানমন্ডি ২৭ নম্বর পর্যন্ত এ মশাল মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

ঢাকা মহানগর পশ্চিম থানা ছাত্রদলের সভাপতি কামরুজ্জামান জুয়েলের উদ্যোগে মশাল মিছিলে সহস্রাধিক নেতাকর্মী অংশ নেন।

বিক্ষোভ মিছিল শেষে রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘লেখক মুশতাককে যে নির্যাতনের মাধ্যমে হত্যা করা হয়েছে, কার্টুনিস্ট কিশোরের বক্তব্যে তা প্রমাণিত হয়েছে। কার্টুনিস্ট কিশোর ও মুশতাকের ওপর বর্বর নির্যাতন চালানো হয়েছে। কিন্তু নির্যাতন নিপীড়ন করে সরকারের শেষ রক্ষা হবে না। তাদের পতন ঘণ্টা বেজে গেছে। মানুষ রাস্তায় নামতে শুরু করেছে। এ সরকারের পতন ঘটিয়ে ছাত্র-জনতা রাজপথ ছাড়বে।’

তিনি বলেন, ‘হত্যার আসামির দণ্ড মওকুফ হয়, দ্রুত জামিন হয়, লুটপাটকারীরা ধরাছোঁয়ার বাইরে থাকে, দেশ থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা পাচারকারীরা সহজেই দেশ ছাড়তে পারে, অথচ মানুষ এসবের সমালোচনা করলেই তাদের ওপর নেমে আসে নির্যাতন। নিপীড়ন আর হুংকারের স্বরে এখন দেশ শাসন চলছে। মুশতাক ফাঁসির আসামি নন, তবুও তাকে কারাগারের মধ্যে জীবন দিতে হলো। সরকার মনে করছে, যারা সমালোচনা করে তারা প্রত্যেকেই অপরাধী, সুতরাং কারাগার এবং মৃত্যুই তাদের একমাত্র প্রাপ্য। ক্ষমতাসীনদের বিপক্ষে কোনো সত্য উচ্চারণ এবং সমালোচনা করলেই সেটা হয়ে যায় তাদের চোখে রাষ্ট্রদ্রোহিতা।’

রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে অন্যায়ভাবে ভিত্তিহীন মামলায় সাজা দেওয়া হয়েছে। কারাগার থেকে মুক্ত হলেও তিনি এখন গৃহবন্দি। আমরা অবিলম্বে গণতন্ত্রের মাতা খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করছি। আমরা দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সব মামলা প্রত্যাহারের জোর দাবি করছি।’