ঢাবি উপাচার্যকে শিক্ষার্থীদের স্মারকলিপি

ঢাবি উপাচার্যকে শিক্ষার্থীদের স্মারকলিপি
ঢাবি উপাচার্যকে শিক্ষার্থীদের স্মারকলিপি

নিউজ ডেস্ক: পূর্বের মানদণ্ড বহাল রেখে ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণের দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছুরা। মঙ্গলবার দুপুর একটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য কার্যালয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের পক্ষে স্মারকলিপি গ্রহণ করেন সহকারী প্রক্টর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ বদরুজ্জামান ভূঁইয়া এবং সীমা ইসলাম। স্মারকলিপির বিষয়ে উপাচার্যকে অবহিত করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী।

জানা যায়, দুইজন সহকারী প্রক্টর উপাচার্যের পক্ষে ভর্তিচ্ছুদের স্মারকলিপি গ্রহণ করেছেন। এই বিষয়ে তারা উপাচার্য মহোদয়কে অবহিত করেছেন।

আগে, পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের সামনে ‘২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি ইচ্ছুক শিক্ষার্থী’র ব্যানারে একটি সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করেন শিক্ষার্থীরা। সিলেটের মদন মোহন কলেজের শিক্ষার্থী এবং ভর্তিচ্ছুদের মুখপাত্র সানোয়ার হোসেনের সঞ্চালনায় সমাবেশে শিক্ষার্থীদের পক্ষে নারায়নগঞ্জের সরকারি তোলারাম কলেজে শিক্ষার্থী মো. তানজিম, চট্টগ্রাম সিটি কলেজের শিক্ষার্থী শাহাদাত হোসেনসহ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

আরো বলেন, ‘ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য ন্যূনতম জিপিএ বৃদ্ধি করার কারণে লাখ লাখ শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারছে না। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের এই সিদ্ধান্তের কারণে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের বৃহৎ অংশ এবং আমাদের পরিবার অনেক হতাশ এবং মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। আমরা বলছি না যে, আমাদেরকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সরাসরি ভর্তি নিতে হবে। আমরা শুধুমাত্র পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ চাই।’ এসময় তারা ভর্তি পরীক্ষায় আবেদনের ন্যূনতম জিপিএ বৃদ্ধি না করে পূর্বের জিপিএ বহাল রাখার জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান।

সমাবেশ শেষে ভর্তিচ্ছুরা একটি মিছিল বের করেন। মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হল, উপাচার্যের বাসভবন হয়ে উপাচার্য কার্যালয়ে গিয়ে স্মারকলিপি প্রদানের মাধ্যমে শেষ হয়। স্মারকলিপি প্রদান শেষে তারা আগামী ৪ মার্চ বিকেল চারটায় শাহবাগে সংহতি সমাবেশের ঘোষণা দেন।