পীরগঞ্জের এক বিথীর মানব সেবা যেন এক দৃষ্টান্ত

বখতিয়ার রহমান,পীরগঞ্জ(রংপুর):  রংপুরের পীরগঞ্জে ক্ষুদ্র পরিসরে হলেও মানবিক সেবা নিয়ে হাঁটি হাঁটি পা পা করে এগিয়ে চলছে এক বিথীর মানব সেবা । তার উদ্যেগে গড়ে উঠেছে “পীরগঞ্জ মানব কল্যাণ এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ” নামের একটি ক্ষুদে সংগঠন । বলতে গেলে সংগঠনটি শিশুবস্থায় । সেটির আত্মপ্রকাশ ঘটে গত ২০২০ সনের মার্চ মাসে । আর এ সল্প সময়ের মধ্যে সংগঠনটির মানবিক কায্যক্রম অনেককে মুগ্ধ করেছে । এ যেন হয়ে উঠেছে এক দৃষ্টান্ত ।

কথা হয় সংগঠনটির মুল উদ্যেক্তা শিক্ষার্থী বিথী আক্তার এর সঙ্গে । অত্র উপজেলার পীরগঞ্জ ইউনিয়নের রামপুরা গ্রামের এক নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারে তার জম্ম । তার বাবা ছিলেন ওই ইউনিয়নের ইউপি সদস্য । পরিবারের ভাই বোনের মধ্যে বিথী সবার ছোট । বিথীর জম্মের এক বছর পর তার বাবা মারা যান । তাই বাবার কর্মকান্ড দেখার সৌভাগ্য হয়নি তার । কিন্তু মা ও গ্রামবাসীর মুখে শুনেছেন বাবার মানবিক গুনাবলীর গল্প । আর বাবার গুনাবলীর আদর্শকে লালন করার জন্যই বিথী মানব কল্যানে আত্মনিয়োগের আগ্রহী হয়ে উঠেন । সে লক্ষ্যে এ গুনোর চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বিথীর ।

বীথি এখনও শিক্ষার্থী । এইচ এসসি পাশ করেছে । সিদ্ধান্ত নিয়েছেন উম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির । তার পরেও লেখা পড়ার পাশাপাশি প্রতিনিয়ত সাধ্যমত দিয়ে যাচ্ছেন মানবিক সেবা। ইতিমধ্যে তার ক্ষুদ্র প্রচেষ্ঠায় ১০ শিক্ষার্থীর পারস্পারিক পরামর্শে সংগঠনটির মাধ্যমে এতিম অসহায় মানুষকে সাহায্য সহযোগীতা অব্যহত রেখেছে । আর এ সহযোগীতার অর্থ তারা সাধ্যমত নিজেদের থেকেই সংগ্রহ করেন । সংগঠনটির জম্মেও পর থেকে ইতিমধ্যে ৫০ জন শীতার্ত মানুষকে শীতবস্ত্র, করোনাকালনি সমযে ৫ জন বিধবাকে খাদ্য সহায়তা এবং আরও বেশ ক’জনকে চিকিৎসা সহায়তা দেয়া হয়েছে ।

মানবিক বিথীর মতে তিনি ছাগল প্রতিপালন করেন । অনেক সময় ছাগল বিক্রির অর্থও ব্যায় করেন এ মানবিক সহায়তায় । তবে কেউ স্বেচ্ছায় সংগঠনটির সহায়তা কর্মকান্ডে সহায়ক তাও গ্রহন পুর্বক শতভাগ স্বচ্ছতায় সমাজের অসহায় মানুষ গুলোর মাঝে বিতরন করা হয় । বিথী পারবেন কি না জানেন না , তবে তার প্রত্যাশা এলাকার অসহায় মানুষ গুলো যেন ভাল থাকে । এ চেষ্টায় অবিচল থাকবেন তিনি ।