সমাজ-অর্থনীতি বিষয়ে আমার প্রচুর আগ্রহ: ড. আতিউর

সমাজ-অর্থনীতি বিষয়ে আমার প্রচুর আগ্রহ: ড. আতিউর রহমান
সমাজ-অর্থনীতি বিষয়ে আমার প্রচুর আগ্রহ: ড. আতিউর রহমান

নিউজ ডেস্ক: সমাজ, অর্থনীতি ও নেতৃত্ব বিষয়ে আমার আগ্রহ প্রচুর, জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর, উন্নয়ন সমন্বয় চেয়ারম্যান ড. আতিউর রহমান।

মঙ্গলবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি দুপুরে রাজধানীর বাংলা মোটরের উন্নয়ন সমন্বয় অডিটোরিয়াম রুমে ‘ওরে মন, হবেই হবে: বঙ্গবন্ধু ও সমকালীন বাংলাদেশ’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর, অর্থনীতি নিয়ে লিখেছি আর বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে নিরন্তর লিখছি। এবং সেই লেখাগুলির একটি অংশ নিয়ে আজকে বই বের হলো। আরও কয়েকটি বই বের হতে যাচ্ছে। শুধুমাত্র করোনাকালীন অর্থনীতি নিয়ে যে সমস্ত লেখা লিখছি। সেই লেখাগুলি নিয়ে আরো একটি বই বের হচ্ছে নাম হল করোনা কালের অর্থনীতি। খুব শিগগিরই বের হয়ে যাবে।

তিনি বলেন, আমি সারা জীবন কাজ করেছি যে, অর্থনীতির মত বিষয়টিকে নিয়ে। অর্থনীতি যতে সহজ ভাষায় প্রকাশ করতে পারি এবং সাহিত্যের দোরগোড়ায় নিয়ে যেতে পারি। আমার অর্থনীতি অনেক সময় অনেকের কাছে সাহিত্য হতে পারেন। সেটা চেষ্টা করি এবং অর্থনীতির মত বিষয়টাকে পাঠকের মাঝে সহজ করে তুলে ধরার চেষ্টা আমার বহুদিনের।

তিনি আরও বলেন, বইটি আমি উৎসর্গ করেছি আমার শহীদ বন্ধু খুরশীদ আলীকে। খুরশিদ আমার ক্যাডেট কলেজের বন্ধু। আমার মত এক সাধারণ পরিবার থেকে গিয়েছিলো কলেজে। কিন্তু মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে গিয়ে যুদ্ধে তিনি শহীদ হন। হয়তো তার কথা কেউ মনে রাখেনি। সেই জন্য আমার বইতে তার নাম খোদাই করে রাখলাম।

উন্নয়ন সমন্বয় চেয়ারম্যান ড. আতিউর রহমান বলেছেন, গত এক বছর আমি অনেক লিখেছি। কত লিখেছে আমি নিজেও বলতে পারিনা। করোনায় সবাইকে থামিয়ে রাখলেও, আমার লেখা থামিয়ে রাখতে পারেনি।

ড. আতিউর রহমান বলেন, আমি গত এক বছর ধরে নিরন্তর লিখছি। কত যে লিখছি আমি নিজেই জানিনা। প্রায় প্রতিনিয়ত লিখছি। করোনা মহামারী আমাকে আটকে রেখেছিল। কিন্তু মনের দিক থেকে আটকাতে পারিনি। আমি সর্বক্ষণ চিন্তা করেছি, ভেবেছি ও লেখেছি।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান দুলাল, সমাজতাত্ত্বিক ও গবেষক খন্দকার সাখাওয়াত আলী, বাংলাপ্রকাশ কনসালটেন্ট রহিম শাহ, সোনালী ব্যাংক পরিচালক ও এক্সপার্টস একাডেমি এমডি ইশতিয়াক চৌধুরী প্রমুখ।

ঢাকানিউজ২৪.কম