বীর মুক্তিযোদ্ধা জামাল উদ্দীনকে দেখতে গেলেন ইউএনও

বীর মুক্তিযোদ্ধা জামাল উদ্দীনকে দেখতে গেলেন ইউএনও
বীর মুক্তিযোদ্ধা জামাল উদ্দীনকে দেখতে গেলেন ইউএনও

এনামুল হক,ময়মনসিংহ: লাল-সবুজের পতাকা খচিত বিশ্ব-মানচিত্রে সার্বভৌম দেশ অর্জনে পাক-বাহিনী বিরোধী দুঃসাহসী লড়াকু বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জামাল উদ্দীন। ত্রিশাল উপজেলার ছলিমপুর গ্রামের মৃত হামেদ আলী মন্ডলের ছেলে বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জামাল উদ্দীন জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে আজ। বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জামাল উদ্দীন মহান স্বাধীনতা সংগ্রামে মেজর আফছার উদ্দিনের নেতৃত্বে মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জামাল উদ্দিনের অসুস্থতার খবর জানতে পেরে ত্রিশাল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান শারীরিক অবস্থা দেখতে সোমবার সন্ধ্যায় তার দরিরামপুরের বাসায় উপস্থিত হন। পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে তার অসুস্থতার কথা আরও বিস্তারিত শোনে বিভিন্ন পরামর্শ প্রদান করেন। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন ত্রিশাল রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি মোঃ কামাল হোসেন, বাংলাদেশ অনলাইন সংবাদ কল্যাণ ইউনিয়ন (বসকো) কেন্দ্রীয় পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মমিনুল ইসলাম মমিন, সাংবাদিক সালমান হোসেন সুমন।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত পাঁচ বছর আগে মস্তিকে রক্তক্ষরণ জনিত কারণে ব্রেইন স্ট্রোক করেন তিনি। এরপর হতেই তার স্মরণ শক্তি লোপ পায় ও ডান পা অচেতন হয়ে পড়ে। পা অচেতন হয়ে পড়ায় বিছানা ছেড়ে উঠতে পারেন না বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জামাল উদ্দীন। অন্যের সাহায্য নিয়ে নাড়াচাড়া করতে হয় তাকে। প্রতিনিয়তই এক কঠিন সময়ের মধ্যদিয়ে পাড়ি দিতে হচ্ছে। আরও জানান, তিনি তার কর্মজীবনে বিআরডিবি’র অধিনস্থ প্রকল্পের আওতায় প্রধান পরিদর্শক হিসেবে চাকুরি করেন।

চাকুরি থেকে অবসর গ্রহণের কিছুদিন পরই বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জামাল উদ্দীন ব্রেইন স্ট্রোক করেন। সেই থেকে চিকিৎসাধীন আজ অবধি বিছানায় দিনাতিপাত করছেন। এখন তিনি ঠিকভাবে কথা বার্তা বলতে পারেন না আর বললেও ঠিক মত বোঝা যায় না। বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জামাল উদ্দিনের রোগমুক্তি কামনায় সকলের কাছে দোয়া প্রার্থণা করছেন তার পরিবারের সদস্যগণ।

ঢাকানিউজ২৪.কম