করোনার টিকা লুকিয়ে কেন নেন বিএনপি নেতারা প্রশ্ন তথ্যমন্ত্রীর

মাননীয় মন্ত্রী ড.হাছান মাহমুদ
মাননীয় মন্ত্রী ড.হাছান মাহমুদ

সুমন দত্ত: বিএনপি নেতারা লুকিয়ে কেন করোনার টিকা নিচ্ছেন? রাজনীতি প্রকাশ্যে করেন। টিকাটাও প্রকাশ্যে নেন। মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি হলে ইমক্যাব আয়োজিত বঙ্গবন্ধু: বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক শীর্ষক সেমিনারে এই মন্তব্য করেন তথ্যমন্ত্রী ড.হাছান মাহমুদ।

এদিন তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন ভারতের হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী, ইমক্যাব সভাপতি বাসুদেব ধর, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন, ডিইউজে সাধারণ সম্পাদক কুদ্দুস আফ্রাদ, সিনিয়র সাংবাদিক সাবেক সভাপতি বিএফইউজে মনজুরুল আহসান বুলবুল, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরি প্রমুখ। এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা লেখক কলামিস্ট সাংবাদিক হারুন হাবীব।

মন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেন, ভারত বাংলাদেশ সম্পর্ক অত্যন্ত ভালো। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের এক কোটি শরণার্থী আশ্রয় নিয়েছিল ভারতে। সেদেশের জনগণ তাদের বাচাতে রাস্তায় চাঁদা তুলেছে। সেখানকার বাসিন্দারা তাদের একটি ঘর শরণার্থীদের জন্য ছেড়ে দিয়েছে। এমন উপকারের কথা কখনও ভোলার নয়। বাংলাদেশ স্বাধীন হতে এদেশের সেনাবাহিনীর সঙ্গে ভারতের সেনাবাহিনীর রক্ত একাকার হয়ে গেছে। ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্কের ভিত্তি হচ্ছে ১৯৭৪ সালে মুজিব ইন্দিরা চুক্তি। কিছু গোষ্ঠী এই চুক্তি বিরোধিতা করেছিল। এর অপব্যাখ্যা দিয়েছিল। আজ সেই চুক্তির বাস্তবায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশ ভারতের কাছে থাকা ছিট মহলগুলো ফিরে পেয়েছে। ভারত বাংলাদেশের বন্ধ বলেই আজ এই চুক্তি তাদের পার্লামেন্টে র‍্যাটিফাই হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশে বিএনপির মত কিছু রাজনৈতিক দল ভারত বিরোধী রাজনীতি করে। যে দেশ বাংলাদেশের তিন দিকে, যে দেশ বাংলাদেশের স্বাধীনতায় মুখ্য ভূমিকা পালন করেছে। সে দেশের বিরুদ্ধে কীভাবে বৈরী ভাব রাখা যায়? এটা যে বিএনপি বোঝে না তা নয়। তারা বোঝেন তারপরও রাজনীতির খাতিরে তারা ভারত বিরোধী রাজনীতি করেন। আমরা সব সময় ভারতের বন্ধু হয়ে থাকি।

ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক যাতে খারাপ না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। সম্প্রতি টিকা নিয়ে এদেশের ও ভারতের গণমাধ্যমে যে প্রচার হলো তা ভুল ছিল। আমাদের দেশের ও ভারতের কিছু গণমাধ্যম টিকা নিয়ে ভুল খবর প্রচার করে। এর ফলে ভারতের স্বাস্থ্য সচিব কে সংবাদ সম্মেলন করে বিষয়টি পরিষ্কার করতে হয়। সেরামের আদর পুনাওয়ালাকে বিবৃতি দিতে হয়।

তারপর কি দেখা গেল? টিকা যথা সময়ে এসেছে। আগামীতে আরো আসবে। বাংলাদেশকে ভারত সরকার ফ্রিতে ২০ লক্ষ টিকা দিয়েছে। তার জন্য ভারতের কাছে কৃতজ্ঞ আমরা। তিনি তথ্য নির্ভর খবর প্রচারে জোর দেন। মিথ্যা খবর যাতে প্রচার না হয় সেদিকে সাংবাদিকদের খেয়াল রাখতে বলেন।

করোনার টিকা প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, বিএনপির নেতারা লুকিয়ে করোনার টিকা নিচ্ছেন। কেন নিচ্ছেন? রাজনীতি জনসমক্ষে করেন। করোনার টিকাটা জনসমক্ষে নেন। সবাই জানুক দেখুক। লুকিয়ে কেন?

ঢাকানিউজ২৪ডটকম