তাঁতিদের আর্থসামাজিক উন্নয়ন এবং মূলধন সরবরাহে কাজ করেছে সরকার

তাঁতিদের আর্থসামাজিক উন্নয়ন এবং মূলধন সরবরাহ নিশ্চিতে কাজ করেছে সরকার
তাঁতিদের আর্থসামাজিক উন্নয়ন এবং মূলধন সরবরাহ নিশ্চিতে কাজ করেছে সরকার

নিউজ ডেস্ক : বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বলেছেন, তাঁতিদের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন এবং মূলধন যোগানের কষ্ট দূর করার জন্য সরকার কাজ করেছে।

শনিবার নারায়্ণগঞ্জের রূপগঞ্জে বাংলাদেশ তাঁত বোর্ডের বেসিক সেন্টার এ ‘তাঁতিদের আর্থসামাজিক অবস্থার উন্নয়নে চলতি মূলধন সরবরাহ ও তাঁতের আধুনিকায়ন’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ইনোভেশন কার্যক্রমের অংশ হিসেবে তাঁতি কার্ড বিতরণ অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

বাংলাদেশ তাঁত বোর্ডের চেয়ারম্যান মোঃ শাহ আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে রূপগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ শাহজাহান ভূইয়া, উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ্ নূসরাতসহ সংশ্লিষ্ট অংশীজন প্রমুখ।

মন্ত্রী বলেন, তাঁতিদের চলতি মূলধনের চাহিদা মিটাতে ‘তাঁতিদের জন্য ক্ষুদ্রঋণ কর্মসূচি’ শীর্ষক কর্মসূচির আওতায় এ পর্যন্ত (ডিসেম্বর, ২০২০) ৪৬ হাজার ৬৪৫ জন প্রান্তিক তাঁতিকে ৯ হাজার ৬৮৭ দশমিক ৩৫ লাখ টাকা ঋণ বিতরণ করা হয়েছে। পদ্মা সেতু সংলগ্ন মাদারীপুরের শিবচর ও শরীয়তপুরের জাজিরায় নির্মিত হচ্ছে শেখ হাসিনা তাঁত পল্লী। রূপগঞ্জ বেসিক সেন্টারের পাশে তাঁত গবেষণা কেন্দ্র হবে। রূপগঞ্জে আরেকটি জামদানি পল্লী স্থাপনের কাজ হাতে নেয়া হয়েছে। সরকারের পক্ষ থেকে তাতিঁদের সুতা রংসহ বিভিন্ন কাঁচামালের সুবিধা দেয়া হবে। নির্মিত হবে আন্তর্জাতিকমানের প্রর্দশনী ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্র।

মন্ত্রী বলেন, এ এলাকাসহ দেশের সকল তাঁতিদের রক্ষা করার জন্য সরকার নানামুখী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। সহজ শর্তে যে পরিমাণ ঋণ নিয়ে তাঁতিরা টিকে থাকতে পারে সেই পরিমাণ ঋণের ব্যবস্থা তাঁত বোর্ড করবে ।

মন্ত্রী বলেন, তাঁতশিল্প বাংলাদেশের ঐতিহ্যের ধারক। এ শিল্পে প্রত্যক্ষ প্রায় ৯ লাখ এবং পরোক্ষভাবে ৬ লাখ মোট ১৫ পনেরো লাখ লোকের কর্মসংস্থান হচ্ছে। বছরে ৪৭ দশমিক ৪৭৪ কোটি মিটার কাপড় উৎপাদনের মাধ্যমে তাঁতশিল্প দেশের মোট বস্ত্র চাহিদার প্রায় ২৮ ভাগ পূরণ করে থাকে।

উল্লেখ্য, সর্বশেষ তাঁত শুমারী অনুযায়ী দেশের অভ্যন্তরীণ বস্ত্র চাহিদার ৪০ শতাংশ তাঁত শিল্প যোগান দিয়ে থাকে। এ শিল্পের বার্ষিক উদপাদনের পরিমাণ ৬৮ দশমিক ৭০ শতাংশ। আর জাতীয় অর্থনীতিতে মূল্য সংযোজনের দিক থেকে তাঁত শিল্প খাতের অবদান ১২২৭ কোটি টাকার । আরও জানা গেছে, দেশে বিদ্যমান ১ লাখ ৮৩ হাজার ৫১২টি তাঁত ইউনিটে মোট হস্তচালিত তাঁতের সংখ্যা ৫ লাখ ৫ হাজার ৫৫৬টি। এর মধ্যে চালু তাঁতের সংখ্যা ৩ লাখ ১১ হাজার ৮৫১টি।

ঢাকানিউজ২৪.কম