যাবজ্জীবন মানে ৩০ বছর কারাদণ্ড

সুমন দত্ত: যাবজ্জীবন মানে সাজা পাওয়া ব্যক্তি ৩০ বছর সাজা ভোগ করবেন। আমৃত্যু কারাদণ্ডের সাজা হলে তিনি যতদিন বেচে থাকবেন ততদিন জেলে থেকে সাজা ভোগ করবেন। তবে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে সাজা পাওয়া ব্যক্তি এই সুবিধা নিতে পারবেন না। তাদের ক্ষেত্রে যাবজ্জীবন মানে আমৃত্যু কারাবাস।

মঙ্গলবার বাংলাদেশ সুপ্রিমকোর্টের আপীল বিভাগ এক হত্যা মামলার রিভিউ আবেদন নিষ্পত্তিতে এই সিদ্ধান্তের কথা জানায়। প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে গঠিত ৭ বিচারপতির পুর্নাঙ্গ বেঞ্চ এই রায় ঘোষণা করে।

রায়ে বলা হয়, ফৌজদারি কার্যবিধি ও দণ্ডবিধি এক সঙ্গে পড়লে বোঝা যায় যাবজ্জীবন মানে ৩০ বছর কারাবাস। সেক্ষেত্রে রেয়াতি সুবিধা পেয়ে এটা ২২ বছর হয়। তবে ব্যক্তি যদি আমৃত্যু কারাদণ্ড পান সেক্ষেত্রে এই রেয়াতি সুবিধা পাবেন না। রিভিউ আবেদনকারীর আইনজীবী শিশির মনির এ কথা বলেন।

প্রসঙ্গত ২০০৩ সালের ১৫ অক্টোবর এক হত্যা মামলায় দুই অভিযুক্তকে দোষী সাব্যস্ত করে মৃত্যুদণ্ড দেয় নিম্ন আদালত। এ রায়ের বিরুদ্ধে ২০০৭ সালে হাইকোর্টে আপীল করে দণ্ডিতরা। হাইকোর্ট তাদের সাজা বহাল রাখে। পরে রায়ের বিরুদ্ধে সুপ্রিমকোর্টে আপীল করলে ২০১৭ সালে তাদের মৃত্যুদণ্ড বাতিল করে আমৃত্যু কারাদণ্ড দেয়া হয়। সেই রায়ের বিরুদ্ধে রিভিউ আবেদন করলে আজ মহামান্য সুপ্রিমকোর্ট এ সিদ্ধান্ত জানায়।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম