ক্ষমতা ছাড়ার আগে ট্রাম্প ইরানে আক্রমণ করতে পারে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতা ছাড়ার আগ মূহুর্তে ইরানে সামরিক আঘাত হানতে পারেন। মার্কিন সংবাদ সংস্থা ফোর্বস জানিয়েছে, ইসরাইল প্রতিরক্ষা বাহিনী উচ্চ সতর্কতায় রয়েছে।

গত সপ্তাহের শুরুর দিকে নিউইয়র্ক টাইমস জানিয়েছিল যে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প রাষ্ট্রপতি নির্বাচন হেরে ইরানের পারমাণবিক স্থাপনায় আক্রমণ করার উপায় খুঁজছিলেন। তবে, প্রবীণ উপদেষ্টারা তাকে বিরত রাখেন।

সিনিয়র মার্কিন কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে বলা হয়, ইরানের নাতাঞ্জ পারমাণবিক কেন্দ্রের উপর হামলার বিষয়ে ট্রাম্প সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।জাতীয় প্রতিরক্ষা শীর্ষ কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠকে ট্রাম্প আরও জানতে চেয়েছিলেন, এই মূহুর্তে ইরানে আক্রমণ করলে ফলাফল কি হবে?

ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স, পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও, আর্মি চিফ অফ স্টাফ জেনারেল মাইক মিলি এবং ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি অফ ডিফেন্স ক্রিস্টোফার সি মিলার সকলে তাকে এই হামলা থেকে ট্রাম্পকে নিবৃত্ত করেন। কেউ তার মতামতের সাথে সহমত না জানালে শেষে ট্রাম্প তার সিদ্ধান্ত থেকে বিরত থাকনে।

অপরপক্ষে, ট্রাম্পকে মার্কিন উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা জানান এই মূহুর্তে ইরানে আক্রমনের বিষয়টি যেন মাথায় না নেন। এই মূহুর্তে ইরানের পারমাণবিক স্থাপনায় হামলা হলে পুরো মধ্যপ্রাচ্যে এক বিশাল সামরিক সংঘাতের সূত্রপাত হবে, যা নিয়ন্ত্রণ করা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জন্য সম্ভব নাও হতে পারে। মধ্যপ্রাচ্যে যে কোন সংঘাতে বেশিরভাগ দেশগুলি ইসরাইলে আঘাত হানতে পারে ভয়ে ইসরাইল বাহিনী সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থায় রয়েছে।