সরকার নির্বাচনকে তামাশায় পরিণত করেছে: ফখরুল

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ফাইল ছবি

নিউজ ডেস্ক :    বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘সরকার নির্বাচনকে তামাশায় পরিণত করেছে। এই সরকার জনবিচ্ছিন্ন। তাদের অধীনে কখনোই সুষ্ঠু নির্বাচন হতে পারে না।’ সরকারের প্রতি পদত্যাগের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেছেন, অতীতের সব নির্বাচন বাতিল করে দিয়ে একটি নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে স্বাধীন নির্বাচন কমিশনের পরিচালনায় ভোটের ব্যবস্থা করুন। এটাই একমাত্র সমাধান।

সোমবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির উদ্যোগে ঢাকা-৫ এবং নওগাঁ-৬ আসনের উপনির্বাচন বাতিল ও পুনর্নির্বাচনের দাবিতে বিক্ষোভ কর্মসূচিতে বিএনপি মহাসচিব এ কথা বলেন। একই দাবিতে মঙ্গলবার সারাদেশে প্রত্যেক থানায় বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করবে এ দল।

মির্জা ফখরুল বলেন, এই ভয়াবহ অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পেতে হলে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। সব মানুষকে জেগে উঠতে হবে। যুবক-তরুণ-ছাত্রকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। বৃহত্তর আন্দোলনে তাদের নেতৃত্বে পরিবর্তন আসতে হবে। আন্দোলনের মধ্য দিয়ে পরিবর্তন আসবে।

তিনি সব রাজনৈতিক দলের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, আসুন, গণতান্ত্রিক অধিকার ও মানুষের ভোটের অধিকার ফিরে পাওয়ার জন্য দলমত নির্বিশেষে সবাই ঐক্যবদ্ধ হই। আসুন, সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে এ সরকারকে হটিয়ে সত্যিকারের জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করি।

নির্বাচন কমিশনকে (ইসি) ‘ঠুঁটো জগন্নাথ’ হিসেবে উল্লেখ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, এই কমিশনের লজ্জা-শরম বলতে কিছূ নেই। ঢাকায় তারা ১০ ভাগ ভোট বলছে। কিন্তু বাস্তবে ৫ ভাগ ভোটও পড়েনি। যদিও ইসি বলছে, ভোট সুষ্ঠু হয়েছে। করোনাভাইরাস সংক্রমণ থেকে নেতাকর্মীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় মুখে অবশ্যই মাস্ক পরার অনুরোধ জানান বিএনপি মহাসচিব।

মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেলের সভাপতিত্বে সমাবেশে বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরফত আলী সপু, মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক আবদুল আলিম নকি, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভুঁইয়া জুয়েল প্রমুখ বক্তব্য দেন।