করোনার পর যুক্তরাষ্ট্রকে ছাড়িয়ে যেতে পারে চীনা অর্থনীতি

নিউজ ডেস্ক:  করোনার সংক্রমণে গোটা বিশ্বের অর্থনীতি ধুঁকছে। কিন্তু তার মধ্যেও করোনা সংকট কাটিয়ে বিশ্ব অর্থনীতিতে আরো বাড়বে চীনের প্রভাব। এমনই পূর্বাভাস দিল আন্তর্জাতিক অর্থ তহবিল (আইএমএফ)। ২০২১ সালে বিশ্ব অর্থনীতিতে যে আর্থিক বৃদ্ধি হবে, তার মধ্যে ২৬ দশমিক ৮ শতাংশ আসতে পারে চীন থেকে। ২০২৫ সালে সেটা বেড়ে হতে পারে ২৭ দশমিক ৭ শতাংশ। বিশ্ব অর্থনীতিতে অবদানের নিরিখে যা যুক্তরাষ্ট্রকে টপকে অনেক উপরে উঠে যাবে চীন। তবে উল্লেখযোগ্য প্রভাব থাকবে ভারত, জার্মানি ও ইন্দোনেশিয়ার।

আনন্দবাজার পত্রিকার এক খবরে বলা হয়েছে, করোনার প্রভাব মুক্ত চীনের অর্থনীতি। দেশকে করোনামুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে কয়েক মাস আগেই। অথচ গোটা বিশ্ব এখনো লড়াই করে চলেছে। এই পার্থক্যই চীনকে আর্থিক বৃদ্ধিতে এগিয়ে রাখবে বলে মনে করছেন অর্থনীতিবিদরা।

বর্তমানে ক্রয়ক্ষমতার নিরিখে বিশ্ব অর্থনীতিতে যুক্তরাষ্ট্রের অবদান ২৩ শতাংশেরও বেশি। সেখানে চীনের অবদান ১৫ দশমিক ৫ শতাংশের মতো। ২০২৫ সালের যে অর্থনৈতিক চিত্র আইএমএফ প্রকাশ করেছে, সেই তথ্য নিয়ে ব্লুমবার্গের দাবি, ২০২৫ সালে চীনের সেই অবদান বেড়ে হতে পারে ২৭ দশমিক ৭ শতাংশ। আর যুক্তরাষ্ট্রের অবদান নেমে যেতে পারে ১০ দশমিক ৪ শতাংশে। তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকতে পারে ভারত, ১৩ শতাংশ অবদান নিয়ে।