করোনার দ্বিতীয় টিকার অনুমোদন দিয়েছে রাশিয়া

নিউজ ডেস্ক:   স্পুটনিক-৫ এর পর এবার করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় আরেকটি টিকার অনুমোদন দিয়েছে রাশিয়া। গত বুধবার একটি সরকারি বৈঠকে এই ঘোষণা দেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

বার্তাসংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, সাইবেরিয়ার ভিক্টর ইন্সটিটিউট এ টিকাটির উদ্ভাবন করেছে। গত মাসে মানবশরীরে তার প্রথম ধাপের পরীক্ষা শেষ হয়েছে। যদিও তার ফল এখনো প্রকাশ করা হয়নি। তা ছাড়া তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা নামে পরিচিত বড় আকারের ট্রায়ালও এখন পর্যন্ত শুরু করা হয়নি।

রাষ্ট্রীয় টিভিতে প্রচারিত বক্তব্যে পুতিন বলেন, ‘আমাদের প্রথম ও দ্বিতীয় টিকার উৎপাদন বাড়ানো দরকার। আমরা আমাদের বিদেশি অংশীদারদের সঙ্গে সহযোগিতা অব্যাহত রেখেছি। আমরা বিদেশে আমাদের টিকার প্রচার চালাব।’

রাশিয়ার দ্বিতীয় টিকাটির নাম ‘এপিভ্যাককরোনা’। প্রাথমিক পর্যায়ে ১৮ থেকে ৬০ বছর বয়সী ১০০ জন স্বেচ্ছাসেবকের ওপর টিকাটির পরীক্ষা চালানো হয়েছে।

গত আগস্ট মাসে রাশিয়া তাদের প্রথম করোনার টিকার অনুমোদন দেয়। বিশ্বে প্রথম করোনার টিকা অনুমোদনের ঘটনা ছিল এটি। রাশিয়ার প্রথম করোনা টিকাটি নিয়েই পশ্চিমা দেশগুলোর গবেষকদের মধ্যে সন্দেহ-সংশয় রয়েছে। তার মধ্যেই দেশটি দ্বিতীয় টিকার অনুমোদন দিল। রাশিয়ার প্রথম টিকার তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে। এই পরীক্ষায় ৪০ হাজার মানুষ অংশ নেবে।

অন্যদিকে, দেশটির দ্বিতীয় টিকার ওপর বড় আকারের পরীক্ষা আগামী নভেম্বর বা ডিসেম্বর মাসে শুরু হতে পারে। ওই পরীক্ষায় ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবী অংশ নিতে পারে।