অভিনেত্রী ও উপস্থাপক তনিমা হামিদ

নিউজ ডেস্ক:   তনিমা হামিদ। অভিনেত্রী ও উপস্থাপক। মাছরাঙা টিভিতে তার উপস্থাপনায় রান্না বিষয়ক অনুষ্ঠান ‘নানা স্বাদে রাঁধুনী’ শুরু হয়েছে । এ আয়োজন ও অন্যান্য প্রসঙ্গে কথা হয় তার সঙ্গে- অনেকদিন পর আবার টিভিতে কাজ শুরু করেছেন। কিন্তু অভিনয়ের বদলে উপস্থাপনায় কেন?

আমি কেন উপস্থাপনায় তা জানতে চাইলে ‘নানা স্বাদে রাঁধুনী’ অনুষ্ঠান আয়োজকদের জিজ্ঞেস করা উচিত। যে কোনোদিন উপস্থাপনা করেনি, সেই আমাকেই কেন উপস্থাপক হিসেবে বেছে নিয়েছেন। অবশ্য এ নিয়ে তারা কী বলবেন, সেটি পরের বিষয়। আমিই বলি। সত্যিটা হলো, কিছু মানুষের অনুরোধ ফেলা যায় না। এই অনুষ্ঠানের ক্ষেত্রেও সেটাই হয়েছে। পরিচিত মানুষের অনুরোধ রাখতে গিয়েই আমার উপস্থাপনায় আসা।

অনুরোধ রাখতে গিয়েই না হয় উপস্থাপনা করছেন। কিন্তু আপনার উপস্থাপনা নিয়ে দর্শক কী বলছেন, তা জানতে চাননি?

উপস্থাপনা নিয়ে কিছু মানুষের প্রশংসা পেয়েছি, এটা সত্যি। আমিও প্রতিটি পর্বে মনোযোগ দিয়ে কাজ করি। তারপরও বারবার মনে নয়, একটি অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেছি এই যথেষ্ট, আগামীতে আমাকে দিয়ে এই কাজ আর করানো যাবে না।

টিভি আয়োজনে যখন সময় দিচ্ছেন, তখন অভিনয়েও দেখা যাবে- এমন আশা করা যায় কি?

মনের মতো গল্প ও চরিত্র পেলে টিভি নাটকে অভিনয় করব। তা ছাড়া আমি তো বলিনি, কখনোই টিভি নাটকে অভিনয় করব না। পড়াশোনা, বিয়ে, সন্তানের দেখাশোনা, এরপর বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ঢুকে যাওয়া- এসব করতে গিয়েই টিভির জন্য অনেকদিন কিছু করা হয়ে ওঠেনি। এখন সবকিছু গুছিয়ে এনেছি। এখন টিভি নাটক, টেলিছবিতে অভিনয় করা যেতেই পারে। তার আগে গল্প পড়ে যদি মনে হয়, এটি দর্শকের মনোযোগ কাড়বে এবং চরিত্র সবার বিশ্বাসযোগ্য মনে হবে, তাহলেই কাজটি করব।

মঞ্চে নিয়মিত কাজ করছেন?

অভিনয়ের ক্ষুধা মেটাতেই মঞ্চে কাজ করি। এরই মধ্যে আমার একক অভিনয়ের ‘এ ওম্যান অ্যালোন’ নাটকের ২৪টি শো হয়েছে। ২৫তম শোর প্রস্তুতি নিলেও করোনার জন্য সবকিছু থেমে আছে।

পরিচালনা নিয়ে কখনও ভেবেছেন?

সিনেমা নির্মাণের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছি। আমি চাই, সাধারণ মানুষের ভালো লাগবে- এমন একটি সিনেমা তৈরি করতে। আলোড়ন সৃষ্টিকারী কিছু করতে চাই বা করতে হবে- এমন ভাবনা নিয়ে কোনো কাজের পরিকল্পনা নেই।