যশোরকে বিভাগ করার দাবি

বক্তব্য রাখছেন সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুল্লাহ আল মামুন

সুমন দত্ত: ঐতিহাসিক জেলা যশোরের নামে বিভাগের দাবি জানিয়েছেন বৃহত্তর যশোর উন্নয়ন ও বিভাগ বাস্তবায়ন পরিষদ নামে একটি সংগঠন। শনিবার ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটিতে সাগর রুনি মিলনয়তানে এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানান সংগঠনের নেতা ও সদস্যরা। অনুষ্ঠানে সূচনা বক্তব্য পাঠ করেন মিয়া মাসুদুর রহমান। তিনি যশোর বিভাগ বাস্তবায়ন পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক। এছাড়া মূল বক্তব্য পাঠ করেন অ্যাডভোকেট আবদুল্লাহ আল মামুন। তিনি সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক। এদিন তার সঙ্গে আরো উপস্থিত ছিলেন গাজী সাইফুর রহমান, লে. কর্নেল হাসান ইকবাল, মহম্মদ নাসির উদ্দিন, কাজী রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

বক্তারা যশোরকে বিভাগ করার জন্য সরকারের কাছে ১১ দফা দাবি প্রস্তাব করেন। এসব দাবির মধ্যে আছে যশোর বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে রূপান্তরিত করা। ঢাকার সঙ্গে দ্রুত যোগাযোগ স্থাপনে পাটুরিয়া দৌলতদিয়াতে দ্বিতীয় পদ্মা সেতু নির্মাণ। পাশাপাশি রেল যোগাযোগ সংস্কার করে পশ্চিম অঞ্চলের সঙ্গে ব্যবসা বাণিজ্য বৃদ্ধি ও উন্নত করা। যশোর পৌরসভাকে সিটি কর্পোরেশনে উন্নীত করা। নড়াইল, মাগুরা, ঝিনাইদহ ও যশোরকে নিয়ে একটি বিশেষ অর্থনৈতিক জোন করা। উল্লিখিত এই চারটি জেলায় পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজ ও প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা। বেনাপোল স্থলবন্দরকে আরো বেশি আধুনিকরন করতে হবে। ঢাকা-যশোর-বেনাপোল মহাসড়ককে চার লেনে উন্নীত করা। হাইটেক পার্ক স্থাপন। গ্যাস সরবরাহ নিশ্চিত করা। আন্তর্জাতিক মানের স্টেডিয়াম নির্মাণ করা। পর্যটনের জন্য হোটেল নির্মাণ করতে হবে।

অনুষ্ঠানে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন যশোরকে বিভাগ করার আগেই কয়েকটি প্রস্তাবে সরকারের সায় আছে। এসব বাদে বিভাগ করলে নতুন কি কি সুবিধা পাওয়া যাবে? যা বর্তমানে বিভাগ না করার কারণে হচ্ছে না। উত্তরে সংগঠনের নেতারা বলেন, প্রশাসনিক কাজ বাড়বে এতে সেই অঞ্চলের বাসিন্দারা নাগরিক সুবিধা খুব সহজে পাবে। অন্য অঞ্চলের লোকরাও সেখান থেকে সুযোগ সুবিধা নিতে পারবে ।