অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা পুরস্কার ২০২০

নিউজ ডেস্ক:    তথ্য অধিকার আইন থাকলেও সেবার ক্ষেত্রে সীমাবদ্ধ রেখা টেনে রাখায় মুক্ত সাংবাদিকতা ব্যাহত হচ্ছে বলে মনে করে টিআইবি।

সোমবার দুপুরে ভার্চুয়াল ব্রিফিংয়ে, টিআইবির দুর্নীতি বিষয়ক অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা পুরস্কার ঘোষণায় এ কথা বলেন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক ডক্টর ইফতেখারুজ্জামান। দুর্নীতি বিষয়ক অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা পুরস্কারে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ৫ সাংবাদিকের নাম ঘোষণা করা হয় ব্রিফিংয়ে।

প্রয়োজন ও চাহিদা মত তথ্য না পেলে অনুসন্ধানী রিপোর্ট করতে সাংবাদিকদের বেগ পেতে হয়। তাই স্বাধীন সাংবাদিকতার স্বার্থে প্রয়োজনীয় তথ্য পেতে সীমাবদ্ধতা তুলে দেয়ার পরার্মশ দেন তিনি।

টিআইবির অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় প্রিন্ট মিডিয়া আঞ্চলিক ক্যাটাগরিতে যৌথভাবে পুরস্কার বিজয়ী হয়েছেন যশোরের ‘দৈনিক গ্রামের কাগজ’- এর সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার ফয়সাল ইসলাম এবং চট্টগ্রামের সাপ্তাহিক ‘চাটগাঁর বাণী’ পত্রিকার সম্পাদক মোহাম্মদ সেলিম।

২০১৯ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি থেকে ০৯ মার্চ পর্যন্ত ‘দৈনিক গ্রামের কাগজ’ পত্রিকায় ‘যশোরে পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রমে পদে পদে দুর্নীতি’ শিরোনামে প্রকাশিত ০৩ পর্বের ধারাবাহিক প্রতিবেদনের জন্য সাংবাদিক ফয়সাল ইসলাম এ পুরস্কার অর্জন করেন।

আর সাংবাদিক মোহাম্মদ সেলিম ২০১৯ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রামের সাপ্তাহিক ‘চাটগাঁর বাণী’তে ‘সীতাকুণ্ডে নির্বিচারে ধানিজমি, বসতভিটা, বনাঞ্চল ‘গ্রাস’ করছে বসুন্ধরা গ্রুপ’ শিরোনামে প্রকাশিত প্রতিবেদনের জন্য পুরস্কার বিজয়ী হন। তাঁর প্রতিবেদনে চট্টগ্রামের বাঁশবাড়িয়ার নোনাবিল এবং বোয়ালিকূল এলাকায় বসুন্ধরা গ্রুপের জোরপূর্বক সরকারি এবং ব্যক্তিমালিকানাধীন জমি দখলসহ নানা অনিয়ম, দুর্নীতির বিষয়গুলোকে তুলে ধরেন তিনি।

উল্লেখ্য, সাংবাদিক ফয়সাল ইসলাম ২০১৯ সালেও যৌথভাবে টিআইবির অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা পুরস্কার পেয়েছিলেন।

জাতীয় সংবাদপত্র বিভাগে টিআইবির অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা পুরস্কার বিজয়ী হয়েছেন ‘দৈনিক কালের কন্ঠ’ পত্রিকার সিনিয়র রিপোর্টার আরিফুর রহমান। ‘এডিপিতে শর্র্ষেয় ভূত’ শিরোনামে ২০১৯ সালের ১৪ থেকে ১৭ অক্টোবর ধারাবাহিকভাবে দৈনিক কালের কন্ঠ পত্রিকায় প্রকাশিত চার পর্বের ধারাবাহিক প্রতিবেদনের জন্য এবছর তিনি এই পুরস্কার অর্জন করেন।

টেলিভিশন (প্রতিবেদন) বিভাগে বিজয়ী হয়েছেন এনটিভির সিনিয়র রিপোর্টার সফিক শাহিন। ২০১৯ সালের ০৮-১৩ অক্টোবর ‘একটি মামলাবাজ সিন্ডিকেট সমতল থেকে পাহাড়ে’ শিরোনামে এনটিভিতে প্রচারিত ছয় পর্বের ধারাবাহিক প্রতিবেদনের জন্য এ বছর তিনি পুরস্কার অর্জন করেন। রাজারবাগের কথিত পীর দিল্লুর রহমান সিন্ডিকেটের মামলা দিয়ে কীভাবে সাধারণ মানুষের স¤পদ এবং অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে তার প্রতিবেদনে সেই ভয়ংকর চিত্র তুলে ধরেন তিনি।

টেলিভিশন (প্রামাণ্য অনুষ্ঠান) বিভাগে বিজয়ী হয়েছে চ্যানেল টোয়েন্টি ফোরের প্রামাণ্য অনুষ্ঠান ‘সার্চলাইট’। ২০১৯ সালের ০১ নভেম্বর চ্যানেল টোয়েন্টি ফোরে প্রামাণ্য অনুষ্ঠান সার্চলাইটে প্রচারিত ‘কম্বল?’ শিরোনামে অনুসন্ধানী অনুষ্ঠানের জন্য ‘সার্চলাইট’ এ বছর পুরস্কার অর্জন করে।

এবছর বিচারকমন্ডলীর বিবেচনায় জলবায়ু পরিবর্তন প্রকল্পে দুর্নীতি বিষয়ক জাতীয় সংবাদপত্র বিভাগে মানসম্মত কোন প্রতিবেদন না পাওয়ায় এই বিভাগে কোন পুরস্কার প্রদান করা হয় নি। এছাড়া টেলিভিশন প্রতিবেদনে ক্যামেরাপারসনের বিশেষ ভূমিকার জন্য বিচারকম-লীর কোন সুপারিশ না থাকায় এবছর কোন ক্যামেরাপারসনকেও পুরস্কার দেয়া হয় নি। বিগত ২২ বছর ধরে টিআইবি ‘দুর্নীতি বিষয়ক অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা পুরস্কার’ প্রদান করছে।

অনলাইন প্ল্যাটফর্মে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনা করেন টিআইবির আউটরিচ অ্যান্ড কমিউনিকেশন বিভাগের ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার মোহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ। এসময় মুখ্য আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক, গবেষক ও গণমাধ্যম বিশ্লেষক অধ্যাপক আফসান চৌধুরী, ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক ড. গীতিআরা নাসরিন, বৈশাখী টেলিভিশনের প্ল্যানিং কনস্যালটেন্ট জুলফিকার আলি মাণিক এবং টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন টিআইবির আউটরিচ অ্যান্ড কমিউনিকেশন বিভাগের পরিচালক শেখ মন্জুর-ই-আলম।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন টিআইবির উপদেষ্টা- নির্বাহী ব্যবস্থাপনা অধ্যাপক ড. সুমাইয়া খায়ের, এমআরডিআই এর নির্বাহী পরিচালক হাসিবুর রহমান, চ্যানেল টোয়েন্টি ফোরের নির্বাহী পরিচালক তালাত মামুন, এনটিভির বার্তা প্রধান জহিরুল আলম, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের পরিচালক রিজওয়ান-উল-আলম, সিনিয়র সাংবাদিক শরিফুজ্জামান পিন্টু, এমআরডিআই এর অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা বিষয়ক হেল্প ডেস্কের পরিচালক ও সাবেক সাংবাদিক বদরুদ্দোজা বাবুসহ বিভিন্ন গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব ও সাংবাদিকবৃন্দ।