রামগতিতে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের ভাসমান হাসপাতাল

নিউজ ডেস্ক:  রামগতি উপজেলার মেঘনা উপকূলের দুস্থ ও অসহায় মানুষদের বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা দিচ্ছে বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের ভাসমান হাসপাতাল ‘জীবন খেয়া’। সোমবার উপজেলার আলেকজান্ডার আসলপাড়া লঞ্চঘাট এলাকায় মেঘনা নদীতে ভাসমান হাসপাতালটি নোঙ্গর করে গরীব-অসহায় মানুষদের বিনামূল্যের এ চিকিৎসাসেবা কার্যক্রম শুরু করে।

রামগতি পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের মধ্যচর আবদুল্যাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় চত্বরে সকাল ৮টা থেকে বিকেল পর্যন্ত দিন ব্যাপী চিকিৎসা দেওয়া হয়। এসময় প্রায় সাড়ে ৭শ রোগীকে বিনামূল্যে ব্যবস্থাপত্র ও বিনামূল্যে ঔষধ দেওয়া হয়। এ সেবা কার্যক্রম আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে বলে জানা গেছে।

বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন সূত্রে জানা যায়, ‘জীবন খেয়া’ নামে ভাসমান এ হাসপাতালটির মাধ্যমে স্বেচ্ছাসেবী এ সংগঠনটি উপকূলীয় এলাকা ও চরাঞ্চলের মানুষদের বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান করে আসছে। এ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে রামগতি উপজেলার উপকূলীয় এলাকায় এ সেবা চলছে। এর মাধ্যমে কোস্টগার্ডের সহযোগিতায় আগামী ২-৩ দিন উপজেলার মেঘনা তীরবর্তী বিভিন্ন এলাকায় সেবা প্রদান করা হবে। ভাসমান এ হাসপাতালে মেডিসিন, গাইনী, নাক-কান-গলা ও ডেন্টাল ইউনিটের ৫জন চিকিৎসক, ২জন নার্স ও ১৫ জন স্বেচ্ছাসেবক রয়েছেন। এ হাসপাতালের রোগীদের বিনামূল্যে ব্যবস্থাপত্র দেওয়ার পাশাপাশি বিনামূল্যে ঔষধও দেওয়া হচ্ছে।

বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবক ফারুক আহম্মেদ বলেন, আর্থিক দৈন্যতাসহ বিভিন্ন কারণে উপকূলীয় অঞ্চলের দুস্থ ও অসহায় মানুষদের ঠিকমতো শারীরিক চিকিৎসা করা সম্ভব হয়ে উঠে না। অসহায় এসব মানুষদের জীবন-মানের দিকে বিবেচনা করে তাদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে আমাদের এ প্রচেষ্টা।