বায়ো-বাবলের নতুন জীবনে

নিউজ ডেস্ক: কাছে থেকেও দূরে। একই শহরে বাস করেও পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন। করোনাকালীন সময়ে জাতীয় দলের ক্যাম্প করতে আপনজনের কাছ থেকে বিদায় নিয়ে আজ বায়োসিকিউর বাবলে হোটেলে উঠবেন মুমিনুলরা। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুশীলন আর সোনারগাঁও হোটেলের সীমিত গণ্ডিতে আগামী এক সপ্তাহ মানিয়ে নিতে হবে ২৭ ক্রিকেটারকে। জাতীয় দলের কোচিং ও সাপোর্ট স্টাফ ছাড়া কারও সঙ্গে মেলামেশার সুযোগ থাকছে না ক্রিকেটারদের। শ্রীলঙ্কা সফরে কোয়ারেন্টাইনের মহড়া বলা যেতে পারে বায়োসিকিউর বাবলে টাইগারদের এই ক্যাম্প।

এ অভিজ্ঞতা টাইগারদের জন্য নতুন হলেও বিশ্বের একটা বড় সংখ্যক ক্রিকেটার এরই মধ্যে পরিচিত হয়েছেন। ইংল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, পাকিস্তান, আয়ারল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটাররা বায়ো-বাবলে ছিলেন আন্তর্জাতিক সিরিজে। ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ আর আইপিএলের মতো টি২০ টুর্নামেন্টের সুবাদে নতুন এ জীবনের সঙ্গে পরিচিত হয়েছেন বেশিরভাগ দেশের ক্রিকেটাররাই। এই কাতারে প্রবেশের প্রথম শর্ত কভিড টেস্টে নেগেটিভ রিপোর্ট হাতে পাওয়া। গতকাল সে রিপোর্ট পেয়েছেন ১৮ ক্রিকেটার। বৃহস্পতিবার তাদের নমুনা সংগ্রহের পর পিসিআর ল্যাবে টেস্ট করা হলে শতভাগ নেগেটিভ রিপোর্ট আসে। এর মধ্যে দুইবার পজিটিভ হওয়া সাইফ হাসানের রিপোর্টও নেগেটিভ এসেছে। গতকালও নমুনা দিয়েছেন নয় ক্রিকেটার ও ১০ জন সাপোর্ট স্টাফ। নেগেটিভ রিপোর্ট পাওয়া সাপেক্ষে হোটেলে উঠবেন তারা।

বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী জানান, হোটেল সোনারগাঁওয়ের দুটি ফ্লোর বাংলাদেশ দলের জন্য আলাদা করা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘আমাদের খেলোয়াড় ও সাপোর্ট স্টাফ ছাড়াও হোটেলের নির্দিষ্ট করা ক্লিনার ও বয় থাকবে আইসোলেশন জোনে। সেখান থেকে তারা নিচে নামা বা অন্য কোনো ফ্লোরে যেতে পারবে না। হোটেলের অন্য কেউ আমাদের ফ্লোরে প্রবেশ করতে পারবে না। এ ছাড়াও হোটেলের একটা লিফট এবং দুটি ডাইনিং আইসোলেশন করা হয়েছে। আর বাংলাদেশ দলের সঙ্গে কাজের সূত্রে যারাই থাকবে, সবার কভিড টেস্টের পর আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।’ এই কঠিন নিয়মে এক সপ্তাহের ট্রেনিং শেষ করে ২৭ সেপ্টেম্বর শ্রীলঙ্কা যাওয়ার সূচি ঠিক করা আছে টাইগারদের।

প্রস্তুত হচ্ছে শ্রীলঙ্কা

টাইগারদের মতো স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার ২৩ ক্রিকেটারের অনুশীলন শুরু হবে দেশটির রাজধানী কলম্বোতে। দেশটির একাধিক মিডিয়া দিয়েছে এ খবর। এ ছাড়া বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন টেস্টের সিরিজের জন্য স্পিন উপদেষ্টা কোচ করা হয়েছে রঙ্গনা হেরাথকে। শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডের (এসএলসি) হঠাৎ এই তৎপরতা বলে দেয়, বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ আয়োজনের ক্ষেত্রে বেশ এগিয়ে গেছে তারা।

দেশটির পত্রিকা ডেইলি মিরর লিখেছে, টাইগারদের কেন বায়োসিকিউর বাবলে অনুশীলনের সুযোগ দেওয়া যেতে পারে। বাংলাদেশ দল যেহেতু রিজার্ভ হোটেলে থাকবে আর সাধারণ মানুষের সঙ্গে মিশবে না, তাই অনুশীলনের সুযোগ দেওয়া যেতে পারে। বিষয়টি নিয়ে তাই নতুন করে ভাবছে দেশটির কভিড নিয়ন্ত্রণ টাস্কফোর্স।

এদিকে দেশটির রাষ্ট্রপতি গোতাবায়ে রাজাপাকসের সঙ্গে দেখা করে ক্রীড়া বিষয়ে আলোচনা করেছেন ক্রীড়ামন্ত্রী নামাল রাজাপাকসে। বাংলাদেশ দলের সফর নিয়ে সেখানে কথা হয়েছে বলে মনে করছেন এসএলসির এক কর্মকর্তা। বিসিবি সিইও নিজামউদ্দিন চৌধুরীও জানান এসএলসি থেকে ইতিবাচক বার্তা পাওয়ার কথা, ‘শ্রীলঙ্কান বোর্ড জানিয়েছে, আমাদের বিষয়গুলো তারা সংশ্নিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে তুলে ধরেছে এবং ইতিবাচক সভা হয়েছে। আমরা আশা করছি, আগামী দু-একদিনের মধ্যে তাদের কাছ থেকে দিকনির্দেশনা বা বায়োসিকিউর বাবল পাব।’