কুতুবদিয়ায় টেকসই ও স্থায়ীত্বশীল বেড়িবাঁধ নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন

নিউজ ডেস্ক:   কক্সবাজার জেলার দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়ায় টেকসই ও স্থায়ীত্বশীল বেড়িবাঁধ নির্মাণের দাবিতে মানববন্ধন করেছে তরুণদের সংগঠন উই ক্যান এবং দ্যা আর্থ সোসাইটি। বৃহস্পতিবার বেলা ১২টায় দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়ার উত্তর ধুরুং ইউনিয়নের কায়ছার পাড়া এলাকায় এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

সাম্প্রতিক সময়ে ঘূর্ণিঝড় আম্পান ও অমাবস্যার জোয়ারের পানিতে তলিয়ে গেছে কায়ছার পাড়া এলাকা। উই ক্যান সংগঠনের উদ্যোগে মানববন্ধন কর্মসূচিতে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করে ইপসা ও দ্যা আর্থ সোসাইটি। মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করে কুতুবদিয়া উপজেলা প্রেসক্লাব, কুতুবদিয়া উপজেলা স্টুডেন্ট’স ইউনিফিকেশন, কুতুবদিয়া উপকূল ও বেড়িবাঁধ সুরক্ষা পরিষদ, সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটি, ইপসা, দ্যা আর্থ সোসাইটি, দ্যা কক্স নিউজ টুয়েন্টিফোর ডট কম, বাইঙ্গাকাটা একতা সংঘ, এম হোছাইন লাইব্রেরীসহ আরো কয়েকটি সংগঠনের সংগঠক-কর্মীসহ প্রায় পাঁচশতেরও বেশি মানুষ।

উই ক্যানের প্রতিষ্ঠাতা ওমর ফারুক জয়ের সঞ্চালনায় মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তারা বলেন, উপকূল সুরক্ষায় তরুণ প্রজন্মকে আরো সোচ্চার ও বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করতে হবে। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলায় যুবকদেরই প্রধানতম ভূমিকা পালন করতে হবে। কারণ জলবায়ু পরিবর্তনের অভিঘাতে প্রথমেই ক্ষতিগ্রস্ত হবে নতুন প্রজন্ম। তাই সংগত কারণে উপকূলকে রক্ষায় যুবকদের পালন করতে হবে অতন্দ্র প্রহরীর ভূমিকা।

জলবায়ু পরিবর্তনের অভিঘাতে কক্সবাজারের দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়া, মহেশখালী, হাতিয়া ও বেশ কয়েকটি এলাকা বর্তমানে ব্যাপক ঝুঁকিতে রয়েছে। বহু মানুষ জলবায়ু উদ্বাস্তু হয়েছে। এই ধারা এখনো অব্যাহত আছে। কুতুবদিয়া উপজেলার উদ্বাস্তু বিশাল এক জনগোষ্ঠী কক্সবাজার জেলা সদরের সমুদ্র-সৈকত এলাকায় বসতি স্থাপন করেছে। যা কুতুবদিয়া পাড়া নামে পরিচিত। কুতুবদিয়ার মত সমুদ্রবেষ্টিত উপকূলকে রক্ষা করতে না পারলে অদূর ভবিষ্যতে আরো অনেক ‘কুতুবদিয়া পাড়া’ গড়ে উঠবে।

বিভিন্ন সমীক্ষায় বলা হয়েছে, প্রতি ২ সেন্টিমিটার সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধিতে উপকূলীয় তটরেখা গড় ২-৩ মিটার স্থলভাগের দিকে অগ্রসর হলে ২০৩০ সাল নাগাদ মূল ভূ-খণ্ডের ৮০ থেকে ১২০ মিটার পর্যন্ত অতিক্রম করবে এবং কালক্রমে দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়া ও কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত সমুদ্রগর্ভে বিলীন হয়ে যাবে। একই সাথে হারিয়ে যাবে দেশের সব চেয়ে বড় পর্যটন কেন্দ্র কক্সবাজার। যা বিদেশে দেশের পরিচিতি বয়ে এনেছে এবং অর্থনীতিতে এক বড় ইতিবাচক ভূমিকা পালন করছে।