সমস্ত দুর্বলতা চিনিয়ে দিয়েছে করোনা: ড. ইউনূস

নিউজ ডেস্ক:     করোনা বিশ্বকে নতুন আর্থ-সামাজিক ব্যবস্থা চালু করার সুযোগ করে দিয়েছে বলে মনে করেন গ্রামীণ ব্যাঙ্কের প্রতিষ্ঠাতা তথা শান্তিতে নোবেলজয়ী মহম্মদ ইউনূস। যে সমাজ ব্যবস্থায় থাকবে না উষ্ণায়ন, হাতে গোনা মানুষের হাতে জমবে না সম্পদের সিংহভাগ, থাকবে না বেকারত্বও। তবে তাঁর মতে, এই সুযোগ বাস্তবায়িত করতে চাই নজিরবিহীন কঠিন পদক্ষেপ।

কংগ্রেস নেতা রাহুল গাঁধীর সঙ্গে এক আলাপচারিতায় ইউনূসের দাবি, কোভিড-১৯ দুর্বলতাগুলি প্রকাশ্যে এনেছে, দেখিয়ে দিয়েছে আর্থিক ব্যবস্থা কী রকম ভুল পথে চলছিল। তবে এ বার সেটা শুধরে নেওয়ার সুযোগ তৈরি হয়েছে।

করোনা যে আগামী দিনে অর্থনীতির কাঠামোয় আমূল বদল আনতে চলেছে, তা মোটের উপরে মেনেছেন বিশেষজ্ঞেরা। ইউনূসের মতে, ‘‘এই অতিমারি ভাবনার নতুন জানলা খুলে দিয়েছে। এখন দেখতে হবে আমরা কি ধ্বংসের বিভৎসতার পথে হাঁটব? নাকি চেষ্টা করব এমন আর্থ-সামাজিক ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করতে, যেখানে প্রকৃতিকে দূষিত করবে না উষ্ণায়ন, থাকবে না ধনী-দরিদ্রের মধ্যে আকাশ-পাতাল বৈষম্য বা মানুষকে ভুগতে হবে না বেকারত্বের জ্বালায়।’’

গ্রামীণ ব্যাঙ্কের প্রতিষ্ঠাতার দাবি, করোনা বুঝতে বাধ্য করেছে সমাজে পরিযায়ী শ্রমিক-সহ আর্থিক ভাবে পিছিয়ে পড়া শ্রেণির মানুষের প্রয়োজনীয়তা কতটা। কিন্তু আর্থিক কাঠামোর মধ্যেই ত্রুটি থাকায়, অর্থনীতিকে চালনা করার ক্ষেত্রে গরিব মানুষের গুরুত্ব স্বীকৃতি পায় না। তাঁর মতে, আর্থিক সহায়তা পেলে তাঁরাও ঠিক উঠে দাঁড়াতে পারবেন।