‘মেঘনা উপকূলের শীর্ষ জলদস্যু বাহার বাহিনীর প্রধান’ নিহত

 

নিউজ ডেস্ক: নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে মো. বাহার উদ্দিন (৪২) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) ভোরে উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নের সূর্যমুখী খাল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত বাহার হাতিয়া উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কালিরচর গ্রামের শাহ আলমের ছেলে। র‍্যাবের দাবি, তিনি শীর্ষ জলদস্যু বাহার বাহিনীর প্রধান। ঘটনাস্থল থেকে অগ্নেয়াস্ত্রসহ বাহারের চার সহযোগীকে আটক করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে র‍্যাবের পক্ষ থেকে।

আটকরা হলেন রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি থানার মো. শাহাদাত শেখের ছেলে মো. শান্ত শেখ (২০), হাতিয়া উপজেলার বান্দাখালী গ্রামের বাদশা মাঝির ছেলে মো. ইউছুফ (৩৫), হাতিয়ার দক্ষিণ শান্তিপুর গ্রামের মৃত মোজাম্মেলের ছেলে আলাউদ্দিন (৪০) ও হাতিয়ার চরকৈলাস গ্রামের মো. আবুল হোসেনের ছেলে মো. মুরাদ (৩০)।

র‌্যাবের ভাষ্যমতে, মেঘনা উপকূলের শীর্ষ জলদস্যু বাহার তার বাহিনীর সদস্যদের নিয়ে সূর্যমুখী খাল এলাকায় অবস্থান করছে- এমন সংবাদের ভিত্তিতে সেখানে অভিযানে যায় র‌্যাবের একটি দল। এ সময় বাহার বাহিনীর সদস্যরা র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন বাহার।

র‍্যাবের দাবি, ঘটনাস্থল থেকে ছয়টি আগ্নেয়াস্ত্রসহ বাহারের চার সহযোগীকে আটক করা হয়। তাঁর বিরুদ্ধে হাতিয়াসহ বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হচ্ছে বলে জানিয়েছেন জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) আলমগীর হোসেন। তিনি জানান, আটক চারজনকে হাতিয়া থানায় সোপর্দ করা হবে। তাদের বিরুদ্ধে র‌্যাব বাদী হয়ে হাতিয়া থানায় মামলা দায়ের করছে। ।