প্রকল্পের কাজে অনিয়ম, এলজিইডি প্রকৌশলী বরখাস্ত

নরসিংদী প্রতিনিধি: নরসিংদী সদর উপজেলার বালুসাইর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষ নির্মাণ প্রকল্পসহ চলমান উন্নয়ন প্রকল্পগুলোর যথাযথ তদারকি না করে ঠিকাদারের সঙ্গে যোগসাজশের মাধ্যমে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে নরসিংদী সদর উপজেলার সাবেক উপজেলা প্রকৌশলী বিপ্লব পালকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়।

মঙ্গলবার রাষ্ট্রপতির পক্ষে স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে তাঁকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

সেই সঙ্গে প্রকল্পগুলোর কাজ স্পেসিফিকেশন অনুযায়ী বাস্তবায়িত না হওয়ায় সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন এবং সরকারি অর্থের যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত হয়নি বিধায় সরকারি কাজে অবহেলা ও দায়িত্বহীনতার কারণে নির্বাহী প্রকৌশলী, এলজিইডি, নরসিংদীর ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন নরসিংদী সদর উপজেলার বালুসাইর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষ নির্মাণ প্রকল্পে নিম্নমানের কাজ এবং আঁকাবাঁকা গ্রেড বিম ও ড্রপ ওয়াল নির্মাণের ফলে যেকোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এ জন্য বিদ্যালয়টির শ্রেণিকক্ষ সম্পূর্ণ ভেঙে নতুনভাবে তৈরি করতে হবে। এ ছাড়া প্রকল্পটির প্রাক্কলিত মূল্য ৮৭ লাখ ৭৭ হাজার ২৮৭ টাকা। এর মধ্যে ২৫ লাখ দুই হাজার ২৩২ টাকা এরই মধ্যে ঠিকাদারকে বিল হিসেবে প্রদান করা হয়েছে, যেখানে কাজের অগ্রগতি ৩০ ভাগ দেখানো হয়েছে।

ঠিকাদারের সঙ্গে পরস্পর যোগসাজশের মাধ্যমে উপজেলা প্রকৌশলী বিপ্লব পাল অর্থ আত্মসাৎ করেছেন, যা প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয়েছে বলেও প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়। এ ছাড়া সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন এবং সরকারি কাজে অবহেলা ও দায়িত্বহীনতার অভিযোগও আনা হয় তাঁর বিরুদ্ধে।

তিনি নরসিংদী সদর উপজেলা প্রকৌশলী হিসেবে কর্মরত থাকাকালীন এই অনিয়মের সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন।

উল্লিখিত অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে বিপ্লব পালের বিরুদ্ধে সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা, ২০১৮-এর বিধি ৩(খ) ও (ঘ)-এর অধীনে অভিযোগ আনা হয় এবং সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা, ২০১৮-এর ১২ বিধি অনুযায়ী তাকে সরকারি চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।