পাকিস্তান-দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলে করোনার হানা

নিউজ ডেস্ক:   দুই দফা টেস্টে পাকিস্তানের ১০ জন ক্রিকেটারের মধ্যে করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে। ইংল্যান্ডের উদ্দেশ্যে রওনা হওয়ার আগে করোনা ধরা পড়ে ক্রিকেটারদের মধ্যে।

এদিকে তিন দলের ক্রিকেটের নতুন ফরম্যাট দিয়ে করোনা ভয় পাশে রেখে ব্যাট-বলের লড়াই মাঠে ফেরানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে সরকারের আপত্তিতে সেই পরিকল্পনা আপাতত স্থগিত।

আজ মঙ্গলবার ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী জ্যাক ফল জানিয়েছেন, দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেটের সঙ্গে সম্পর্ক আছে এমন কমপক্ষে ১০০ জনকে করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। তাদের মধ্যে আছেন খেলোয়াড় ও সাপোর্ট স্টাফরাও। যদিও আক্রান্তের সংখ্যাটা তুলনামূলক কম বলেই মন্তব্য করেছেন ফল।

এদিকে পাকিস্তানে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন আরও ৭ পাকিস্তানি ক্রিকেটার। এদের মধ্যে রয়েছেন ফখর জামান, ইমরান খান, কাশিফ ভাট্টি, মোহাম্মদ হাফিজ, মোহাম্মদ হাসনাইন, মোহাম্মদ রিজওয়ান এবং ওয়াহাব রিয়াজ।

আজ পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) এক সংবাদবিজ্ঞপ্তিতে তাদের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর নিশ্চিত করে। এর আগে ইংল্যান্ড সফরের স্কোয়াডে থাকা শাদাব খান, হারিস রউফ এবং হায়দার আলী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

এদিকে দক্ষিণ আফ্রিকায় তিন দলের ক্রিকেট নিয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন জ্যাক ফল। এর কারণ হিসেবে তিন বলেছেন, সেঞ্চুরিয়ানে ম্যাচটি আয়োজনের কথা ছিল, স্থানটি এখন করোনাভাইরাসের ‘হটস্পস্ট’ হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। তবে ফল জানিয়েছেন, প্রয়োজনে ভেন্যু পরিবর্তন করাও হতে পারে।

করোনা আক্রমণের কারণে দেশটিতে খেলাধুলা বন্ধ হবার পর ক্রিকেট দিয়ে তা আবার শুরু হবার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছিল। তবে উল্লিখিত করোনা পরীক্ষায় সাত জনের ফলাফল পজিটিভ আসায় দেশটির খেলাধুলার নিকট ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্নবোধক চিহ্ন থেকেই গেল।