যশোর থেকে যাত্রীবাহী বিমান চালু বুধবার

নিউজ ডেস্ক:  করোনার প্রভাবে ৭৮ দিন বন্ধ থাকার পর বুধবার যশোর-ঢাকা রুটে ফের চালু হচ্ছে যাত্রীবাহী বিমান। প্রথমদফায় প্রতিদিন দু’টি বেসরকারি উড়োজাহাজ ৮টি করে ফ্লাইট চলাচল করবে এ রুটে।

মঙ্গলবার যশোর বিমানবন্দরে মেডিকেল টিম নিযুক্ত হবার পর এ রুটে যাত্রীবাহী বিমান চলাচলের এই অনুমোদন দেয় বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ- সিভিল অ্যাভিয়েশন।

যশোরের বিমানবন্দর ম্যানেজার মাসুদুল হক বলেন, মেডিকেল টিমের নিশ্চয়তা পাওয়ায় যশোর-ঢাকা রুটে উড়োজাহাজ চলাচল শুরু হচ্ছে। শুরুতে বেসরকারি ইউএস বাংলা ৪টি ও নভোএয়ার ৪টি করে ফ্লাইট পরিচালনা করবে। তবে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ১৫ জুন পর্যন্ত সব রুটে বন্ধ ঘোষণা করায় তাদের কোন ফ্লাইট আপাতত আসছে না।

উল্লেখ্য, যশোর-ঢাকা রুটে স্বাভাবিক সময়ে প্রতিদিন ১২ থেকে ১৪টি ফ্লাইট চলাচল করতো। এর মধ্যে ইউএস-বাংলার ছয়টি, নভোএয়ারের পাঁচটি এবং বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইট যাত্রী নিয়ে ঢাকা থেকে আসা-যাওয়া করতো।

বেসরকারি উড়োজাহাজ কোম্পানি ইউএস বাংলার যশোর ব্যবস্থাপক সাব্বির হোসেন জানান, ফ্লাইট চলাচলের অনুমতি পাওয়ার খবর মঙ্গলবার জানানো হয়েছে। এতে যাত্রীদের তেমন সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না। তবে দু’একদিনের মধ্যে যাত্রী বাড়বে বলে তারা আশা করছেন।

যশোরের সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন বলেন, এয়ারপোর্টে মেডিকেল টিম নিযুক্ত করতে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে অনুমতি চাওয়া হয় আগেই। অনুমতি পাবার পর বিমানবন্দরে তিন সদস্যের মেডিকেল টিম বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

যশোর চেম্বার অব কমার্সেও সাবেক সভাপতি মিজানুর রহমান খান জানান, যশোর বিমানবন্দরটি গুরুত্বপূর্ণ। বাণিজ্য সচল রাখতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে উড়োজাহাজ চলাচল শুরু হওয়ায় ব্যবসায়ীরা উপকৃত হবে।

করোনার কারণে গত ২৫ মার্চ থেকে অভ্যন্তরীণ সকল রুটে যাত্রীবাহী বিমান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। গত কয়েকদিন আগে খুলে দেয়া হয় চট্টগ্রাম, সিলেট ও সৈয়দপুর বিমানবন্দরও। তবে শর্ত জুড়ে দেয়া হয়, স্বাস্থ্যপরীক্ষা ছাড়া বিমানবন্দরে কোন যাত্রী প্রবেশ করতে পারবে না। কিন্তু যশোর বিমানবন্দরে মেডিকেল টিম নিযুক্ত না থাকায় এ রুটে যাত্রীবাহী বিমান চলাচলের অনুমতি পেতে বিলম্ব হয়।